ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ কার্তিক ১৪২৭, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জাতীয়

পাবনা মেরিন একাডেমির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

জেলা প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২১২ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৬, ২০১২

পাবনা: পাবনায় দেশের দ্বিতীয় মেনির একাডেমির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) এ কে খন্দকার (বীর উত্তম)।

এসময় মন্ত্রী বলেন, “বিশ্বব্যাপী সমুদ্রগামী জাহাজ পরিচালনায় প্রায় সাড়ে ৬ লাখ মেরিন অফিসার ও ইঞ্জিনিয়ার প্রয়োজন।

বর্তমানে প্রায় সাড়ে ৫ লাখের মতো মেনির অফিসার ও ইঞ্জিনিয়ার আছে। অর্থাৎ প্রায় ১ লাখ মেরিন ইঞ্জিনিয়ারের ঘাটতি রয়েছে। ”

“এছাড়াও বিশ্বে প্রতি বছর প্রায় আড়াই হাজার সমুদ্রগামী জাহাজ বাড়ছে। ফলে, দিনদিন মেরিন ইঞ্জিনিয়ারের চাহিদা বেড়ে যাচ্ছে- সেই চাহিদা মেটাতে সরকার দেশে মেরিন একাডেমি বাড়ানোর সিন্ধান্ত নিয়েছে। ”

তিনি শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় পাবনা জেলার নগরবাড়ি নৌবন্দর এলাকায় ১শ ২৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০ একর জায়গার ওপর পাবনা মেরিন একাডেমির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন আনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

বরিশাল মেরিন একাডেমির কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। পাবনা মেরিন একাডেমি চালু হলে পাবনাসহ নগরবাড়ি ঘাট এলাকার গুরুত্ব অনেক বেড়ে যাবে। পাবনা ও আশপাশের জেলার সন্তানরা এখানে পড়াশুনা করতে পারবে বলে জানান তিনি।

তিনি বলেন, “সুশিক্ষিত, দক্ষ মেরিন ইঞ্জিনিয়ার তৈরি হওয়ার পর বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ একটি সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে গর্বের সঙ্গে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারবে বলে। ”

এতে বিশেষ অতিথি নৌপরিবহণ মন্ত্রী মো. শাহজাহান খান এমপি বলেন, “দেশে বর্তমানে একটি মেরিন একাডেমি ও ১৩টি বেসরকারি মেরিন ইন্সটিটিউট রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের ডিগ্রীধারী ক্যাডাররা বর্হিবিশ্বে মাসিক  ৫ লাখ থেকে ২৫ লাখ টাকা বেতনে চাকরির সুযোগ পাচ্ছে। ”

মন্ত্রী আরও বলেন, নতুন এসব মেরিন একাডেমিসমূহ সমুদ্রগামী জাহাজে উচ্চ বেতনের আরও অনেক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করবে।

নৌপরিবহণ মন্ত্রণালয়ের সচিব সৈয়দ মনজুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে বাংলাদেশ মেরিন একাডেমি আয়োজিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্য রাখেন, স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, নৌবাহিনী প্রধান ভাইস অ্যাডমিরাল জহির উদ্দিন মাহমুদ, বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির কম্যান্ডান্ট ডা. সাজিদ হোসেন, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সচিব ফজলুল বারী, বিআইডাব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান ড. শামসুজ্জোহা, জেলা পরিষদের প্রশাসক  এম. সাইদুল হক চুন্নু, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল কাদের, এসএম রফিকুল্লাহ প্রমুখ।

এ সময় জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন পর্যায়ে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এবং আওয়ামী লীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ মেরিন একাডেমি সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে পাবনা মেরিন একাডেমি প্রতিষ্ঠার লক্ষে বিআইডাব্লিউটিএ’র সরকারি ১০ একর জায়গা অধিগ্রহণ করা হয়েছে। আগামী দু’বছরের মধ্যে প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন করা হবে। আর চার বছর মেয়াদি মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ২শ ক্যাডেট পড়াশুনার সুযোগ পেলেও প্রথম অবস্থায় এই একাডেমিতে ৫০ জন নটিক্যাল  ও ৫০ জন মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং করার সুযোগ পাবে।

বাংলাদেশ সময়: ২২০২ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৬, ২০১২
সম্পাদনা: শামীম হোসেন, নিউজরুম এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa