ঢাকা, শুক্রবার, ৭ আষাঢ় ১৪৩১, ২১ জুন ২০২৪, ১৩ জিলহজ ১৪৪৫

জাতীয়

জায়গা সংকট, বান্দরবান থেকে কেএনএফের ৩১ জনকে পাঠানো হলো চট্টগ্রাম কারাগারে 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩০ ঘণ্টা, জুন ১১, ২০২৪
জায়গা সংকট, বান্দরবান থেকে কেএনএফের ৩১ জনকে পাঠানো হলো চট্টগ্রাম কারাগারে 

বান্দরবান: বান্দরবানের রুমা ও থানচিতে ব্যাংক ডাকাতি, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অস্ত্র লুট, মসজিদে হামলা এবং ব্যাংক ম্যানেজারকে অপহরণের মামলায় বিভিন্ন সময় গ্রেপ্তার করা আসামিদের মধ্যে ৩১ কেএনএফ সদস্যকে বান্দরবান জেলা কারাগার থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (১১ জুন) সকালে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে তাদের বান্দরবান জেলা কারাগার থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

 

বান্দরবান কারাগারের জেলার মো. জান্নাত-উল-ফরহাদ বলেন, বান্দরবান জেলা কারাগারে স্থান সংকুলান না হওয়ায় কেএনএফের ১৬ নারী এবং ১৫ পুরুষ সদস্যকে সকালে পুলিশের কড়া নিরাপত্তা দিয়ে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।  

তিনি আরও জানান, আদালতের শুনানির দিন তাদের যথা সময়ে আবার বান্দরবানে আনা হবে।  

গত ২ এপ্রিল রাতে বান্দরবানের রুমা সোনালী ব্যাংকে হামলা, পুলিশ-আনসারের অস্ত্র লুট এবং পরে ৩ এপ্রিল দুপুরে থানচি উপজেলার সোনালী ব্যাংক ও কৃষি ব্যাংকে ডাকাতি, হামলা ও টাকা লুটের ঘটনা ঘটে। এদিকে এসব ঘটনায় আসামিদের ধরতে বান্দরবানে শুরু হয়েছে যৌথবাহিনীর অভিযান। অভিযানে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), পুলিশ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), আনসারের সঙ্গে সঙ্গে অংশ নিয়েছে সেনাবাহিনী।

এদিকে ঘটনার পর রুমা থানায় ১৩টি, থানচি থানায় চাটি, বান্দরবান সদর থানায় একটি এবং রোয়াংছড়ি থানায় তিনটিসহ মোট ২১টি মামলা হয়। চলমান এ অভিযানে এ পর্যন্ত কেএনএফের ৯৬ জন সদস্য ও সহযোগীকে গ্রেপ্তার করেছে যৌথবাহিনী।

বাংলাদেশ সময়: ১৩২৭ ঘণ্টা, জুন ১১, ২০২৪

এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।