ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

অস্ত্রের মুখে স্বামীকে জিম্মি করে স্ত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় আটক ৫

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৩৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০২৪
অস্ত্রের মুখে স্বামীকে জিম্মি করে স্ত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় আটক ৫

বগুড়া: বগুড়ার গাবতলী উপজেলায় স্বামীকে ধারালো অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্ত্রীকে (২১) দলবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাদের আটক করে।

 

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) আটকদের আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সন্ধ্যার পর গাবতলী উপজেলার মহিষাবান ইউনিয়নে গোলাবাড়ী-তরনীহাট সড়কের পোড়াদহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আটক পাঁচজন হলেন- বগুড়া গাবতলী উপজেলার মহিষাবান মধ্যপাড়ার রাব্বি, আব্দুল অহেদ, হৃদয়, কাউছার ও মহিষাবান চকমড়িয়া গ্রামের নুর আলম ওরফে নিশাদ। তাদের বয়স ২১ থেকে ২৪ বছরের মধ্যে বলে পুলিশ জানায়।

মামলা ও থানা পুলিশ সূত্র জানায়, ধর্ষণের শিকার ওই নারীর স্বামী গাবতলী উপজেলার মহিষাবান দহপাড়ার বাসিন্দা হলেও তার পুরো পরিবার বগুড়া শহরের লতিফপুর কলোনি এলাকায় বসবাস করেন।  

বৃহস্পতিবার দুপুরে ইজিবাইক চালক স্বামীর সঙ্গে ওই নারী সারিয়াকান্দি উপজেলার প্রেম যমুনার ঘাটে ঘুরতে যান। সন্ধ্যা নাগাদ সেখান থেকে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন তারা। সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে তারা গোলাবাড়ী-তরনীহাট সড়কের পোড়াদহ এলাকায় পৌঁছলে তাদের ইজিবাইকের গতিরোধ করে একদল যুবক।

এরপর ধারালো অস্ত্রের মুখে তাদের জিম্মি করে পার্শ্ববর্তী ইছামিত নদী সংলগ্ন সিঙ্গারবিল নামক স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে তারা ইজিবাইকের মধ্যে স্বামীকে আটকে রেখে ওই নারীর মুখ বেঁধে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এসময় ওই নারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের সেখানে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় ওই যুবকরা। পরে মোবাইল ফোনে বিষয়টি তারা স্বজনদের জানালে ওই এলাকার কিছু লোক গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

গাবতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক আব্দুস শুকুর জানান, বিষয়টি থানা পুলিশ অবহিত হওয়ার পরপরই সেখানে অভিযান শুরু করে। অভিযানে ওই ঘটনায় জড়িত পাঁচজনকে আটক করা হয়। শুক্রবার তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়৷

বাংলাদেশ সময়: ১০৩১ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০২৪
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।