ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

ব্রুনাইয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩১৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০২৪
ব্রুনাইয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন

ঢাকা: যথাযথ সম্মান ও মর্যাদার সঙ্গে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন করেছে ব্রুনাইস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন।  

বুধবার (১৭ এপ্রিল) ব্রুনাইয়ে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের উপস্থিতিতে ব্রুনাইয়ে বাংলাদেশ হাইকমিশনে এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

 

অনুষ্ঠানের শুরুতেই বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীতের তালে তালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন ব্রুনাইয়ে বাংলাদেশ হাইকমিশনার নাহিদা রহমান সুমনা।  

এরপর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, ও তাঁর পরিবারের সদস্য, চার জাতীয় নেতা ও শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করে ও বাংলাদেশের উত্তরোত্তর কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনা করে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত ও এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

বাংলাদেশ হাইকমিশনার ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বাণী পাঠ করা হয়।  

নাহিদা রহমান সুমনা বলেন, মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলায় বাংলাদেশের অস্থায়ী সরকার গঠন, শপথ গ্রহণ ও কার্যক্রম বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামে অনবদ্য ভূমিকা রেখেছিল। বঙ্গবন্ধুর বলিষ্ঠ নেতৃত্ব ও অসীম সাহসিকতাই ছিল মুক্তিযুদ্ধের মূল চালিকা শক্তি।  

তিনি আরো বলেন, স্বাধীনতার ৫২ বছরে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা লাভ করেছে। নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশ এক রোল মডেল। বঙ্গবন্ধুর যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কৃষি, এনার্জি ও তথ্য প্রযুক্তিসহ আরও অনেক ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছে। তারই বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশ ২০৩১ সালের মধ্যে উচ্চ-মধ্যম-আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশের কাতারে থাকবে বাংলাদেশ।  

অনুষ্ঠানে মুজিবনগর দিবসের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট নিয়ে তৈরি প্রামাণ্যচিত্র দেখানো হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ১৩১৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০২৪
টিআর/এসআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।