ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

ঈদ উপলক্ষে বাড়িতে মজুদ করা হয়েছিল আতশবাজি-পটকা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ২, ২০২৪
ঈদ উপলক্ষে বাড়িতে মজুদ করা হয়েছিল আতশবাজি-পটকা

রাজশাহী: রাজশাহী মহানগরীর ডিঙ্গাডোবা এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন প্রকার আতশবাজি ও পটকাসহ দুজনকে আটক করেছে গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ। তারা দীর্ঘদিন ধরে নিষিদ্ধ এ আতশবাজি ও পটকার ব্যবসা করে আসছেন।

ঈদ উপলক্ষে করেছিলেন আরও বেশি মজুদ।

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) দুপুরে মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে সোমবার (১ এপ্রিল) রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা শাখা পুলিশ (ডিবি) অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ আতশবাজি-পটকাসহ তাদের আটক করা হয়।  

আটকরা হলেন- মারুফ হোসেন (২৪) ও নিয়ামত আলী (২১)। তারা রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানার ডিঙ্গাডোবা ব্যাংক কলোনির মৃত তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মো. জামিরুল ইসলাম জানান, সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল করিম তালুকদার ও তার টিম মহানগরীতে রাত্রিকালীন টহল ডিউটি করছিলেন। এ সময় তারা জানতে পারেন রাজপাড়া থানার ডিঙ্গাডোবা ব্যাংক কলোনি এলাকায় দুজন তাদের বাড়িতে আমদানি নিষিদ্ধ বিভিন্ন ধরনের আতশবাজি ও পটকা মজুদ করে বিক্রি করে আসছেন।

এ তথ্যের পরিপ্রেক্ষিতে ডিবি পুলিশের ওই টিম ডিঙ্গাডোবা ব্যাংক কলোনি এলাকায় অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে মারুফ ও তার ভাই নিয়ামত আলীকে আটক করে। এ সময় তাদের বাড়ির একটি কক্ষ তল্লাশি করে ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন নিষিদ্ধ আতশবাজি ও পটকা উদ্ধার করা হয়।

আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছেন, মহানগরীর সাহেববাজার আরডিএ মার্কেটের আরিফ নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে তারা আতশবাজি ও পটকাগুলো কিনেছেন। তারা দীর্ঘদিন ধরে রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন মার্কেটে আতশবাজি-পটকা সরবরাহ ও বিক্রি করে আসছিলেন।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের নামে মহানগরীর রাজপাড়া থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই মামলায় মঙ্গলবার বিকেলে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০২, ২০২৪
এসএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।