ঢাকা, রবিবার, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

বেইলি রোডে আগুন: ঢামেকে লাশের মিছিল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৫৪ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২৪
বেইলি রোডে আগুন: ঢামেকে লাশের মিছিল এ গাড়িতে করেই ঢাকা মেডিকেলে আনা হয় নিথর দেহগুলো

ঢাকা: বেইলি রোডে কাচ্চি ভাই নামে একটি রেস্টুরেন্টে আগুন লেগে ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।  

আগুন নেভাতে একে একে ফায়ার সার্ভিস বাড়াতে থাকে ইউনিট।

একপর্যায়ে ফায়ার সার্ভিসের কাছে খবর আসে, ভবনে আটকে আছেন অনেকে। তারা ১২ ইউনিট নিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি আটকে পড়া লোকজনদের উদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়েন। ৭৫ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।  

বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার পর লাগা এ আগুন ১১টা ৫০ মিনিটের দিকে নিয়ন্ত্রণে আসে।

রাতে বেইলি রোডের একটি ভবনের কাচ্চি ভাই রেস্টুরেন্টে আগুন লাগার পর আতঙ্কিত হয়ে নামার সময় অনেকে আহত হন।  

এদিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পৌঁছে যায় অগ্নিকাণ্ডের খবর। আহত অনেকে আসতে পারেন, এ কারণে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আসাদুজ্জামানের নির্দেশে আগে থেকেই চিকিৎসকরা প্রস্তুতি নিয়ে রাখেন। এরই মধ্যে রাত সাড়ে ১১টা থেকে আসতে থাকেন আহতরা। চিকিৎসক ও নার্সরা তাদের চিকিৎসাসেবা দিতে থাকেন। এরই মধ্যে অচেতন অবস্থায় একে একে আনা হয় অনেককে। তাদের আনা হয় ফায়ার সার্ভিসের একটি বড় কার্গোতে করে। জরুরি বিভাগের চিকিৎসকরা তাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে একে একে মৃত ঘোষণা করতে থাকেন। একপর্যায়ে লাশের মিছিলে পরিণত হয় জরুরি বিভাগ।

হাসপাতালে সে সময় উপস্থিত হয়ে সব কিছু পর্যবেক্ষণ করেন হাসপাতাল পরিচালক মো. আসাদুজ্জামান।

অন্যদিকে রাতে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হাসপাতালে এসে সাংবাদিকদের বলেন, দুই হাসপাতাল মিলে মোট ৪৪ জন বেইলি রোডের অগ্নিকাণ্ডে মারা গেছেন। তাদের মধ্যে ১০ জন শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে মারা গেছেন আর ঢাকা মেডিকেলে ৩৪ জন মারা গেছেন।

ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল থেকে অপর একটি সূত্র জানায়, বেইলি রোডের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় হাসপাতালে চিকিৎসকরা যাদের মৃত ঘোষণা করেছেন, তাদের প্রায় সবাই হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছেন। হাসপাতালে আনার পর তাদের নিয়ম অনুযায়ী পরীক্ষা নিরীক্ষা করে মৃত ঘোষণা করা হয়। ঢাকা মেডিকেলে মৃতদের মধ্যে দুজনের শরীর পুরোপুরি দগ্ধ হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া জানান, শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ১০ জন মারা গেছেন। তাদের কেউ দগ্ধ কি না জানা যায়নি।

এদিকে ফায়ার সার্ভিস বলছে, বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আগুনে দগ্ধ হওয়ার চেয়ে বেশিরভাগ মানুষ শ্বাসরুদ্ধ হয়ে মারা গেছেন।

এদিকে বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মধ্যরাতে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে যান পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল–মামুন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আগুনে ৪৪ জন মারা গেছেন এ পর্যন্ত।


অপরদিকে ১২ ইউনিট কাজ করে রাত ১১টা ৫০ মিনিটে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণের ঘোষণা দিলেও পুরোপুরি নির্বাপণের ঘোষণা দেয়নি। অগ্নিকাণ্ডের কারণ অনুসন্ধানে ফায়ার সার্ভিস পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৭৫১ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২৪
এসআই


 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।