ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ বৈশাখ ১৪৩১, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

ভাষা আন্দোলনের সেই ‘আমতলা গেট’ পরিচ্ছন্ন থাকে বছরে দুই দিন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২৪
ভাষা আন্দোলনের সেই ‘আমতলা গেট’ পরিচ্ছন্ন থাকে বছরে দুই দিন

ঢাকা: ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিতে ‘রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই’ স্লোগান দিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজের যে গেট দিয়ে মিছিল নিয়ে ১৪৪ ধারা ভেঙেছিল ছাত্র সমাজ; স্মৃতিবিজড়িত সেই গেটটি সারা বছর থাকে অপরিচ্ছন্ন আর অবৈধ দোকানপাটের দখলে।

বছর ঘুরে ২১ ফেব্রুয়ারি এলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে প্রবেশের প্রধান সড়কের পাশে অবস্থিত সেই আমতলা গেট অবৈধ দোকানপাট মুক্ত ও পরিচ্ছন্ন করা হয়।

১৯ ফেব্রুয়ারি দিনগত রাত থেকে আমতলা গেট সংলগ্ন জায়গাটিতে পরিচ্ছন্ন করার কাজ শুরু হয়। তবে ২২ ফেব্রুয়ারি সকাল থেকে আবারও জায়গাটি অবৈধ দোকানপাটের দখলে চলে যায়।

প্রতি বছরের মতো ভাষা আন্দোলন স্মৃতিরক্ষা পরিষদ মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে আমতলা গেট থেকে প্রতীকী পদযাত্রার আয়োজন করে।

বাংলা ভাষা ও বাংলা সন-তারিখকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক কাজে ব্যবহার, সর্বস্তরে বাংলা ভাষা ও বাংলা সন-তারিখ প্রচলন এবং ভাষা আন্দোলনের স্মৃতি সংরক্ষণসহ ১১ দফা প্রস্তাবনা বাস্তবায়নের দাবিতে এই প্রতীকী পদযাত্রা করেন সংগঠনটির সদস্যরা।



মঙ্গলবার পদযাত্র কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন ভাষা সৈনিক মন্টু কাজী, সংগঠনের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল মুক্তাদিরসহ সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

ভাষা আন্দোলনের স্মৃতিবিজড়িত সেই আমতলা গেটের পাশেই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের গেট। স্মৃতিবিজড়িত এই গেটের বাম পাশে চায়ের দোকান ও ডান পাশে পুরি-সিঙ্গাড়ার দোকান। সামনের ফুটপাতে পান, সুপারি, ফল, পানি, বিছানা-বালিশের দোকান। গেটের উপরের সাইনবোর্ডটি না থাকলে জানার কোনো উপায় নেই যে, এটি সেই ঐতিহাসিক আমতলা গেট।

সাইনবোর্ডটিতে লেখা—‘ভাষা আন্দোলনের স্মৃতিবিজড়িত আমতলার ঐতিহাসিক প্রাঙ্গণ থেকে। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারির এদিনে ছাত্র সমাজ রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে মিছিল করে ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসির উদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ২০১৮ ও ২০১৯ সালে স্মৃতিবিজড়িত ভাষা আন্দোলনের গেটটি আমি নিজ উদ্যোগে রং করিয়েছিলাম। উপরে সাইনবোর্ড লাগিয়েছিলাম। ওই জায়গায় যেন দোকানপাট বসতে না পারে, এর জন্য ফুটপাতের পাশে খালি জায়গায় লোহার ব্যারিকেড দিয়ে ফুল গাছ লাগিয়েছিলাম।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক সিনিয়র কর্মচারী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বছরে দুই দিন ২১ ফেব্রুয়ারির জন্য সড়কগুলো অবৈধ দোকানমুক্ত থাকে। দেখে আসছি বছরের পর বছর ধরে ২১ ফেব্রুয়ারি এলেই একটি সংগঠন ভাষা আন্দোলনের সেই স্মৃতিবিজড়িত আমতলা গেটের সামনে এসে মানববন্ধন করে, ব্যাস এতটুকুই! বাকি দিনগুলো স্মৃতিবিজড়িত এই গেট অপরিচ্ছন্ন থাকে আর অবৈধ দোকানপাটের দখলে চলে যায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২৪
এজেডএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad