ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

জলবায়ুকর্মীর নামে সাইবার সিকিউরিটি মামলা প্রত্যাহারের দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
জলবায়ুকর্মীর নামে সাইবার সিকিউরিটি মামলা প্রত্যাহারের দাবি

বরিশাল: ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের নির্বাহী প্রধান সোহানুর রহমানের নামে সিকিউরিটি আইনে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে নিন্দা ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন বরিশালের তরুণ জলবায়ু কর্মীরা।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এ প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়।

সমাবেশে ফ্রান্সে কপ-২১ জলবায়ু সম্মেলন থেকে পালিয়ে যাওয়া সজীব খন্দকার জুনায়েদকে গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডাপটেশন নির্বাহী প্রধানের যুব উপদেষ্টা প্যানেল সদস্য পদ থেকে বহিষ্কারের দাবিও জানানো হয়।  

প্রতিবাদ সমাবেশ বক্তব্য দেন ইয়ুথনেট বরিশাল বিভাগের সমন্বয়কারী আশিকুর রহমান, জেলা সমন্বয়কারী মো. সাকিব, অ্যাডভাইজার আরিফুর রহমান শুভ, প্রতীকি যুব সংসদের চেয়ারপারসন ফিরোজ মোস্তফা, বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী আবুল আজাদ, শিক্ষক প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম।  

সমাবেশ বক্তারা বলেন, জলবায়ু ও পরিবেশের প্রশ্নে জনপরিসরের আলাপকে রুদ্ধ করতে সাইবার সিকিউরিটি আইনকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা খুবই নিন্দনীয় জুলুম। সজীব খন্দকার জুনায়েদ ২০১৫ সালে ফ্রান্সের প্যারিসে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ জলবায়ু সম্মেলন (কপ-২১) যুব প্রতিনিধি হিসেবে অংশগ্রহণ করলেও এরপর আর দেশে ফিরে আসেনি। নিজেকে বিরোধী দলের কর্মী দাবি করে প্রতারণামূলকভাবে ৯ বছর ধরে জার্মানিতে অবস্থান করছেন এই ব্যক্তি। সম্প্রতি সজীব গ্লোবাল সেন্টার অন অ্যাডপটেশন নির্বাহী প্রধানের যুব উপদেষ্টা প্যানেল সদস্য নির্বাচিত হলে দেশের তরুণ জলবায়ু কর্মীরা সোচ্চার হয়ে আওয়াজ তোলেন।

এদিকে এ বিষয়ে ইমেইলে পাঠানো এক বার্তায় সজীব খন্দকার জুনায়েদ দাবি করেছেন, তিনি জার্মানিতে কর্মরত অবস্থায় যখন বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় অবদান রাখার চেষ্টা করছেন তখন সিন্ডিকেটেড অপপ্রচারের সম্মুখীন হচ্ছেন।  

ওই বার্তায় তিনি বলেন, বিগত কয়েকদিন ধরে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে আমার নামে সোহানুর রহমান নামের এক ব্যক্তি এবং তার অনুসারীরা নানাভাবে মিথ্যা তথ্য ফেসবুকের মাধ্যমে ছড়িয়ে আসছে যার কোনো ভিত্তি নেই। তিনি জিসিএ'তে মনোনীত না হওয়ায় নিজের হিংসাত্মক চরিত্র মনোভাব চরিতার্থ করার জন্য এসব অপপ্রচার চালাচ্ছেন। এসব অপপ্রচারে বিভিন্ন বিদেশি দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সম্পর্ককে ব্যবহার করছেন।  

ই-মেইল বার্তায় তিনি আরও বলেন, আমি মূলত সিনজেন ভিসা নিয়ে এসে ভিসা সুইচ এর মাধ্যমে জার্মানিতে বৈধভাবে বসবাস করছি। আমি সম্পূর্ণ নিজ খরচে ও নিজ দায়িত্বে প্রবাসে এসেছি। তিনি (সোহানুর রহমান) দাবি করেছেন আমি জলবায়ু সম্মেলন কপ-২১ এ অংশগ্রহণ করেছি অথচ এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। অংশগ্রহণকারী তালিকায় আমার নাম নেই। তিনি কি কারণে এটা করছেন বা এর পেছনে কারা আছেন এটা জানা একান্ত জরুরি।  

একজন স্বেচ্ছাসেবকের এ রকম হিংসাত্মক আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয় বলে ইমেইল বার্তায় দাবি করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
এমএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।