ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

হাজার যাত্রী নিয়ে ঢাকার পথে ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেস’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১, ২০২৩
হাজার যাত্রী নিয়ে ঢাকার পথে ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেস’

কক্সবাজার: রেল আসবে কক্সবাজারে। তার জন্য ৯২ বছরের অপেক্ষা।

অবশেষে অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের নগরে বাজলো ট্রেনের হুইসেল।  

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) ১২টা ৩৩ মিনিটে কক্সবাজার রেলস্টেশন থেকে ছাড়লো ঢাকাগামী প্রথম বাণিজ্যিক ট্রেন ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেস’। এ নিয়ে ট্রেনটির যাত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের আনন্দের শেষ নেই।

ট্রেনের হুইসেল যেন সমুদ্র শহরে নতুন দিগন্তের জানান দিল। জনতার ব্যাপক আনন্দ-উচ্ছ্বাস যেন বলছিল, বহু বছরের অপেক্ষার প্রহর শেষ।  

ঢাকার যাত্রী হোসনে আরা বাংলানিউজকে বলেন, কী যে ভালো লাগছে বলে বোঝাতে পারবো না। রেল স্টেশনটি দেখে মন ভরে গেল।

ইতিহাসের সাক্ষী হলাম। পাশাপাশি প্রথম ট্রেনে চড়ে ঢাকা যাচ্ছি। সে এক অন্য রকম অনুভূতি, বললেন জাকির হোসেন নামে আরেক যাত্রী।

তিনি বলেন, ঢাকা থেকে বাসে এসেছি। যাচ্ছি ট্রেনে, আমার চেয়ে সন্তানরা খুশিতে নাচছে।

এই ট্রেনের মধ্য দিয়েই কক্সবাজার-চট্টগ্রাম ও ঢাকা রুটে প্রথম বাণিজ্যিক রেল চলাচল শুরু হলো। এক হাজার ২০ জন যাত্রী নিয়ে কক্সবাজার ছেড়েছে ট্রেনটি। এই রুটে বাণিজ্যিক টিকিট বিক্রি শুরু হয় ২৩ নভেম্বর। বিক্রি শুরুর দুই ঘণ্টার মধ্যেই শেষ হয়ে যায় সবকটি আসন।  

কক্সবাজার আইকনিক রেল স্টেশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার আতিকুর রহমান জানান, এক হাজার ২০ জন যাত্রী নিয়ে উৎসবমুখর পরিবেশে প্রথম ট্রেনটি যাত্রা করলো। ইতিহাসের সাক্ষী হতে পেরে খুব ভালো লাগছে।

বহুল কাঙ্ক্ষিত ট্রেনটির বাণিজ্যিক এই যাত্রা পরিচালনা করছেন লোকোমাস্টার আব্দুল আউয়াল। তিনি বলেন, ২০ বছর ধরে ট্রেন চালাই। এটিই আমার সবচেয়ে ভালো স্মৃতি যা আজীবন মনে থাকবে।

 কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি আপেল মাহমুদ জানান, ট্রেন স্টেশন থেকে হোটেল পর্যন্ত এবং কক্সবাজারে যেসব স্পটে পর্যটকেরা বিচরণ করবেন, সেখানে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

তিনি জানান, এ ট্রেন যাত্রার মধ্য দিয়ে খুলে গেল কক্সবাজারের পর্যটন ও বাণিজ্যিক সম্ভাবনার নতুন দুয়ার। সেই সঙ্গে দায়িত্ব বেড়েছে সংশ্লিষ্টদেরও।  

রেলপথ সচিব হুমায়ুন কবির বলেন, বর্তমান সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ এটি। আপনাদের মতো আমিও আজ খুশিতে আন্দোলিত হচ্ছি।

রেলপথ মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, কক্সবাজার-ঢাকা রেলপথের দৈর্ঘ্য প্রায় ৪৮০ কিলোমিটার। তবে এই রেলপথের বাণিজ্যিক দূরত্ব ৫৫১ কিলোমিটার। এই দূরত্ব পেরিয়ে ঢাকা-কক্সবাজার রুটে যাত্রায় সময় লাগবে আট ঘণ্টা ১০ মিনিট। এই রুটে সর্বনিম্ন ভাড়া ৬৯০ টাকা।

কক্সবাজার আইকনিক রেল স্টেশনের অন্যতম স্টেশন মাস্টার মো. ফরহাদ বিন জাফর বলেন, কক্সবাজার এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রথম দিন এক হাজার ২০ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকার পথে যাত্রা করে। ট্রেনটিতে মোট ২৩ বাস বা বগি থাকবে।

দীর্ঘ যাত্রা শেষে রাত ৯টার দিকে ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে পৌঁছাবে ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেস’।  

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০১, ২০২৩
এসবি/এসআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।