ঢাকা, বুধবার, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১০ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

গভীর সমুদ্রে দুর্ঘটনা কবলিত লাইটার জাহাজ থেকে ১৪ নাবিক উদ্ধার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১, ২০২৩
গভীর সমুদ্রে দুর্ঘটনা কবলিত লাইটার জাহাজ থেকে ১৪ নাবিক উদ্ধার

ঢাকা: ‘আমাদের জাহাজের ইঞ্জিন নষ্ট হয়ে ইঞ্জিন রুমে পানি ঢুকতেছে, এখন জাহাজের কন্ট্রোল নাই, সাগরে এলোমেলো ভাসতেছি, আমরা ১৪ জন ক্রু আছি জাহাজে, দয়া করে আমাদের উদ্ধারের ব্যবস্থা নেন। ’

এমন অনুরোধ জানিয়ে শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় মুরাদ (১৮) নামে একজন ক্রু ‘জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ ফোন কল করেন।

পরে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হলে ১৪ নাবিককে উদ্ধার করে টহলরত কোস্টগার্ডের উদ্ধারকারী দল।

রোববার (১ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় জরুরি সেবা-৯৯৯ এর গণমাধ্যম ও জনসংযোগ কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক আনোয়ার সাত্তার বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

তিনি বলেন, জানা যায়, এম ভি মাস্টার সুমন-২ নামে একটি লাইটার জাহাজ ১ হাজার ১০০ টন কয়লা বোঝাই করে চট্টগ্রাম থেকে দাউদকান্দি যাচ্ছিলো। এক পর্যায়ে ইঞ্জিন বিকল হয়ে ইঞ্জিন রুমে পানি ঢুকে জাহাজটি সাগরে নিয়ন্ত্রণহীন ভাসতে থাকে। এ সময় জাহাজটি সাঙ্গু গ্যাস ফিল্ড থেকে আনুমানিক ৯.৫ নটিক্যাল মাইল উত্তরে গভীর সমুদ্রে অবস্থান করছিল।

আনোয়ার সাত্তার বলেন, কলটি রিসিভ করেছিলেন ৯৯৯ কলটেকার কনস্টেবল মো. আবদুল কাদের। কনস্টেবল কাদের তাৎক্ষণিকভাবে কোস্টগার্ড নিয়ন্ত্রণ কক্ষ এবং সন্দ্বীপ কোস্টগার্ডে ঘটনাটি জানিয়ে দ্রুত উদ্ধারের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য জানায়। পরে ৯৯৯ ডেসপাচার উপপরিদর্শক (এসআই) কবির রায়হান উদ্ধার সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে যোগাযোগ করে উদ্ধার তৎপরতার আপডেট নিতে থাকেন।

তিনি বলেন, খবর পেয়ে কোস্টগার্ডের নিয়মিত টহল কার্যক্রম পরিচালনাকারী জাহাজ ‘সবুজ বাংলা’ দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে লাইটার জাহাজটি থেকে ১৪ জন ক্রুকে নিরাপদে উদ্ধার করে।

কোস্টগার্ড উদ্ধারকারী দলের নেতৃত্ব দেওয়া লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, উদ্ধারকৃত নাবিকদের প্রাথমিক শুশ্রূষা ও খাবার সরবরাহ করা হয়। পরে মালিকপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে উদ্ধারকৃত ক্রুদের এবং জাহাজটি বুঝিয়ে দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ০১, ২০২৩
এসজেএ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।