ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪৩০, ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

সোনারগাঁয়ে জামদানি কারিগরকে কুপিয়ে জখম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২৩
সোনারগাঁয়ে জামদানি কারিগরকে কুপিয়ে জখম আহত মাফুজুল ইসলাম।

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে মাদক কারবারের বাধা দেওয়ায় মাফুজুল ইসলাম নামের এক জামদানি কারিগরকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে জখম করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) এ ঘটনায় আহতের বড় ভাই মো. মাজহারুল ইসমলাম বাদী হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।



বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সোনারগাঁ উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী আহত জামদানি কারিগরকে উদ্ধার সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের ভারগাঁও চৌরাপাড়া আব্দুল জব্বারের ছেলে নবীর হোসেন তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে এলাকায় মাদক কারবার ও বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করে আসছেন। এলাকায় মাদক কারবার পরিচালনা করায় একই এলাকায় সাদেকুল ইসলাম ছেলে জামদানি কারিগর মাফুজুল এ কারবারের প্রতিবাদ করেন। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় মাফুজুলকে মাদককারবারিরা মারধরের হুমকি দেন। এরই জেরে বুধবার বিকেলে মাদককারবারি নবীররে নেতৃত্বে ফাইজুল ইসলাম, আল আমিন, সোলেমানসহ অজ্ঞাতপরিচয় আরও ২/৩ জন মিলে পূর্ব-পরিকল্পিতভাবে ক্ষুর, চাপাতি, হকিস্টিক, লোহার রড ও লাঠিসোটা নিয়ে ওই ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামের আমিনুল ইসলাম বাড়িতে জামদানি ঘরে বসে প্রবেশ করে মাফুজুলকে হত্যার উদ্দ্যেশে তার ওপর হামলা চালায়। এসময় মাফুজুল জামদানি শাড়ি তৈরি কাজে ব্যস্ত ছিলেন।

হামলাকারীরা মাফুজুলকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে মারাত্মকভাবে রক্তাক্ত জখম করে তার সঙ্গে থাকা নগদ দুই হাজার টাকা ও একটি মোবাইল সেট নিয়ে যায়। এ সময় মাফুজুলের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে হামলাকারীরা ভয়ভীতি দেখিয়ে পালিয়ে যায়। পরে লোকজন আহতাবস্থায় মাফুজুলকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, মাদক কারবারের নবীর হোসেন ভারগাঁও চৌরাপাড়া গ্রামসহ আশপাশের এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে মাদক, চুরি-ডাকতিসহ অপরাধ কর্মকাণ্ড করে আসছেন। তাদের ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করার সাহসও পায় না। কেউ এর প্রতিবাদ করলে তাদের মারধর করে ও হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। স্থানীয় প্রশাসন ও রাজনীতি নেতাদের ম্যানেজ করেই নাকি তারা এলাকায় এ কারবার করে বলে প্রচার করেন।  

সোনারগাঁ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো। আহসান উল্লাহ জানান, হামলার ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৪ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২৩
এমআরপি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।