bangla news

আন্দোলনে যাচ্ছেন পাহাড়ের উপজেলা চেয়ারম্যানরা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১০-০৭ ১০:৪৩:০৯ এএম

দাবি আদায়ের লক্ষে এবার আন্দোলনে যাচ্ছেন বান্দরবান, রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ২৫টি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানরা।

বান্দরবান : দাবি আদায়ের লক্ষে এবার আন্দোলনে যাচ্ছেন বান্দরবান, রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ২৫টি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বান্দরবানের মেঘলা পর্যটন মোটেলে তিন পার্বত্য জেলার চেয়ারম্যানদের মধ্যে এক মতবিনিময় সভায় তারা আন্দোলনে যাওয়ার আভাস দেন।
 
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানরা পার্বত্য জেলা পরিষদের ১০টি বিভাগ তাদের হাতে ন্যস্ত করার দাবি জানান। বান্দরবান সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় পাহাড়ের এই জনপ্রতিনিধিরা তাদের দাবি-দাওয়ার কথা তুলে ধরেন।
 
জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানানোর পরও পার্বত্য জেলা পরিষদ আইনের সঙ্গে উপজেলা পরিষদ আইন এখনও সাংঘর্ষিক। আর বিষয়টি নিরসনের জন্য কোনো উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। এ কারণে তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সঙ্গে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানদের মধ্যে দ্বন্দ্ব লেগে আছে।
 
থানচি ও নাই্যংছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান খামলাই ম্রো এবং তোফায়েল আহম্মেদ বলেন, ‘পার্বত্য জেলা পরিষদের অধীনে থাকা সমাজ সেবা, মৎস্য, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর আদায়, ইজারাসহ ১০টি বিভাগ উপজেলা চেয়ারম্যানদের হাতে ন্যস্ত করতে হবে। এসব দাবি মানা না হলে আমরা পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করব।’
 
মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে রাঙ্গামাটি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মুসা মাতবর বলেন, ‘আমরা শুধু দাওয়াত আর মিটিংয়ে উপস্থিত থেকে সময় পার করছি। জনগণের কাছে যে প্রতিশ্র“তি দিয়েছিলাম তা পূরণ করতে পারছি না।’

সভায় পার্বত্য জেলার ২৫টি উপজেলার ১৯ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে উপজেলা চেয়ারম্যানদের আমন্ত্রণে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হা মতবিনিময় সভায় উপস্থিত থেকে বলেন, ‘এ মূহূর্তে আন্দোলনে যাওয়া ঠিক হবে না। দ্বন্দ্ব নিরসনে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পার্বত্য জেলার ৩ মন্ত্রীকে জানানো হবে।

বাংলাদেশ সময় : ২০১৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৭, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-10-07 10:43:09