ঢাকা, রবিবার, ৯ আশ্বিন ১৪৩০, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

হত্যা মামলায় ১৭ বছর পলাতক থাকার পর আটক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৮ ঘণ্টা, জুন ১, ২০২৩
হত্যা মামলায় ১৭ বছর পলাতক থাকার পর আটক

ফেনী: জেলায় আসাদুজ্জামান খান পিন্টু নামে হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক আসামিকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৭)।

বৃহস্পতিবার (০১ জুন) দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‍্যাব এই তথ্য জানায় র‍্যাব।

র‌্যাব-৭ এর অধিনায়ক মো. সাদিকুল ইসলাম জানান, আসাদুজ্জামান খান পিন্টু সোনাগাজী উপজেলার সফরপুর গ্রামের আইয়ুব খানের ছেলে। তিনি সোনাগাজী উপজেলার সাহেবের হাট সফিউল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের দফতরি হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি হয়ে ১৭ বছর পলাতক ছিলেন। বুধবার (৩১ মে) রাতে সোনাগাজীর সফরপুরে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়েছে।

র‌্যাব জানায়, দফতরি নিয়োগকে কেন্দ্র করে ২০০২ সালের ২২ এপ্রিল তারিখে সোনাগাজীর সাহেবের হাট আলহাজ্ব সফি উল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে দফতরি মাহবুবুল হককে (৪৫) প্রকাশ্যে গুলি করে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী সুলতানা রাজিয়া বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার এজহারভুক্ত তিন নম্বর আসামি পিন্টু গ্রেপ্তারের পর ২০০৬ সালে আদালত থেকে জামিন নিয়ে দীর্ঘ ১৭ বছর পলাতক ছিলেন। এ মামলায় আদালত যাবতীয় প্রক্রিয়া শেষ করে ২০১১ সালের ৩০ মে পিন্টুসহ পাঁচজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামি পিন্টু নাম ঠিকানা পরিবর্তন করে দেশ-বিদেশে আত্মগোপনে থাকেন। পিন্টুকে আটকের পর সোনাগাজী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খালেদ হোসেন জানান, র‌্যাবের হাতে আটক যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি পিন্টুকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৭ ঘণ্টা, জুন ০১, ২০২৩
এসএইচডি/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa