ঢাকা, শনিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

কলেজছাত্রী লামিয়া হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ডিষ্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৯ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২৩
কলেজছাত্রী লামিয়া হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

পিরোজপুর: পিরোজপুরের নাজিরপুরে কলেজ ছাত্রী লামিয়া হত্যার বিচারের দাবিতে মানববব্ধন করেছেন স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দুপুরে উপজেলা পরিষদ গেটে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত।

 

সরকারি বঙ্গমাতা কলেজের অধ্যক্ষ ঠাকুর চাঁদ মজুমদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে উপজেলা সদরের সরকারি বঙ্গমাতা মহিলা কলেজ, নাজিরপুর ডিগ্রি কলেজ, নাজিরপুর বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ও নিহত লামিয়ার সহপাঠীরা সহ স্থানীয়রা অংশ নেন।  

এ সময় বক্তব্য দেন, উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শেখ মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জু, জেলা পরিষদের সদস্য সুলতান মাহমুদ খান, নাজিরপুর বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রশান্ত কুমার হালদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. তরিকুল ইসলাম চৌধুরী তাপস, মো. হৃদয় খান, নিহত লামিয়ার মা রাজিয়া বেগম, খালা সাবিনা ইয়াছমিন, সহপাঠী আছিয়া আক্তার প্রমুখ।

জানা গেছে, উপজেলার চিথলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের কন্যা ও উপজেলা সদরের সরকারি বঙ্গমাতা মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী লামিয়া আক্তারের সঙ্গে গত ৮ বছর ধরে প্রেমের সম্পর্কের জেরে একই গ্রামের মিজান খানের ছেলে তরিকুলের বিয়ে হয়। ওই বিয়েতে তরিকুলের পরিবার রাজি না থাকায় লামিয়া তার বাবার বাড়িতে থাকতেন। গত ৬ নভেম্বর ওই লামিয়া নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় লামিয়ার মা বাদী হয়ে স্বামী তরিকুল ইসলামকে প্রধান করে ৯ জনের নামে মামলা দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ উপজেলার সদর ইউনিয়নের পতিলাখালী গ্রামে বালুর ভেতর থেকে একটি কঙ্কাল উদ্ধার করা হয়।  ওই কঙ্কালটি নিখোঁজ কলেজ ছাত্রী লামিয়া আক্তারের বলে দাবি করেন পরিবার। এর আগে গত ১২ মার্চ রাতে নিহত লামিয়ার বাড়ির সিড়ির উপর পাওয়া একটি চিরকুটের ভিত্তিতে ওই কঙ্কালটি উদ্ধার করা হয়। আর এ ঘটনায় নিহত লামিয়া হত্যার সঙ্গে জড়িত প্রধান আসামি তার স্বামী তরিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছেন পুলিশ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৭ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২৩
এসএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।