bangla news

গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে জামাইয়ের হাতে শাশুড়ি খুন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৯-৩০ ১১:১৪:২২ এএম

মেয়ে ও জামাইয়ের কোন্দল মেটাতে গিয়ে মেয়ে জামাইয়ের লাঠির আঘাতে এক শাশুড়ি মারা গেছেন। গাইবান্ধায় পলাশবাড়ী উপজেলার বালাবামুনিয়া (বাবাজি পাড়া) গ্রামে বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

গাইবান্ধা: মেয়ে ও জামাইয়ের কোন্দল মেটাতে গিয়ে মেয়ে জামাইয়ের লাঠির আঘাতে এক শাশুড়ি মারা গেছেন।

গাইবান্ধায় পলাশবাড়ী উপজেলার বালাবামুনিয়া (বাবাজি পাড়া) গ্রামে বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শাশুড়ি বিবি বেওয়া (৫৫) একই উপজেলার পবনাপুর ইউনিয়নের বরকতপুর গ্রামের মৃত নয়া মিয়ার স্ত্রী।

সন্ধ্যায় এ রিপোর্ট লেখার সময়ে জামাই শফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে পলাশবাড়ী থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবীব বাংলানিউজকে জানান, মেয়ের সঙ্গে জামাইয়ের কোন্দলের খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে বেগম বিবি বাড়ীর পার্শ্ববর্তী একই উপজেলার বালাবামুনিয়া (বাবাজি পাড়া) গ্রামে জামাইয়ের বাড়ীতে উপস্থিত হন। দুপুরে কথাকাটির এক পর্যায়ে জামাই শফিকুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে বেগম বিবির মাথায় লাঠি দিয়ে আঘাত করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন।

প্রতিবেশীরা বেগম বিবিকে উদ্ধার করে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের পারিবারিক সূত্রের বরাত দিয়ে ওসি আরও জানান, প্রায় ১০ বছর আগে বেগম বিবির মেয়ে সাহেরা বেগমের সঙ্গে একই উপজেলার বালাবামুনিয়া (বাবাজি পাড়া) গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে শফিকুল ইসলামের বিয়ে হয়। বর্তমানে সাহেরা বেগম ৩ সন্তানের জননী। তারপরও তাদের মধ্যে কোন্দল লেগেই থাকতো।

ওসি আরও জানান, শাশুড়িকে পেটানো ছাড়াও শফিকুল তার স্ত্রীকেও বেদম পিটিয়েছেন। স্ত্রী সাহেরা বর্তমানে পলাশবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত সাহেরা বেগম বাংলানিউজকে জানান, শফিকুলের বাবা আব্দুর রহমানসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা শফিকুলকে তার স্ত্রী ও শাশুড়িকে পিটুনি দিতে উৎসাহ যুগিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-09-30 11:14:22