ঢাকা, শনিবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০, ০২ মার্চ ২০২৪, ২০ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদকে নিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদকে নিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনী

রাজশাহী: আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চিত্রশিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদের জীবন কর্ম নিয়ে ‘শাহাবুদ্দিন, দ্য পেইন্টার দ্য ফাইটার’ শিরোনামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) পাঁচ দিনব্যাপী একক আলোকচিত্র প্রদর্শনী শুরু হয়েছে।  

শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাবির চারুকলা অনুষদ প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়।

 

চারুকলা অনুষদের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদীন একাডেমিক ভবনে আলোকচিত্র শিল্পী ইফতেখার ওয়াহিদ ইফতি আয়োজিত এ আলোকচিত্র প্রদর্শনী চলবে আগামী বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ প্রদর্শনী সকার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। প্রদর্শনীতে চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদের জীবন কর্মের বিভিন্ন সময়ের অর্ধশত আলোকচিত্র দর্শনার্থীদের জন্য রাখা হয়েছে।

আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

অনুষ্ঠানে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আমি অত্যন্ত আনন্দিত যে এমন মাপের একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ব্যক্তিকে রাজশাহী এনে সংবর্ধনা দিতে পারলাম। আমি শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) নগরভবনে আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বলেছি যে রাজশাহীতে বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিনের নামে একটি আর্ট গ্যালারি করা হবে। রাবি উপাচার্য যেহেতু বলেছেন ক্যাম্পাসে এ গ্যালারি নির্মাণ করলে চারুকলার শিক্ষার্থীরা উপকৃত হবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে যেহেতু প্রচুর জায়গা, তারা যদি একটি সুন্দর জায়গা নির্ধারণ করে দেন তাহলে আগামী তিনমাসের মধ্যে এখানেই গ্যালারিটির ভিত্তি প্রস্তর নির্মাণ করা হবে।

চিত্রশিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদ বলেন, নবীন চিত্রশিল্পীদের ছবি আঁকা শেখার জন্য ভালো শিল্পী বাছাই করতে হবে। আর এজন্য সাধনাও করতে হবে। অনেকে শিল্প নিয়ে সুন্দর কথা বলতে পারলেও ভালো কাজ করতে পারে না। একেকজন একেক ক্ষেত্রে দক্ষ। এজন্য আমি যতবার শিল্পকর্ম নিয়ে বলতে যাচ্ছি, ততবারই পিছিয়ে যাচ্ছি, যেন আমি কিছুই জানি না। আমি মেঘনার তীরে বেড়ে ওঠা মানুষ। এজন্য আমার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড বা ছবিতে পানি পানি ভাব আছে, আর রক্তের ভাব আছে। কারণ না থাকলে তো যে কেউ মৃত।

অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাবি উপাচার্য প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তার।  

তিনি বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিল্পী শাহাবুদ্দিনের উপস্থিতি আমাদের ঋদ্ধ করেছে। ১৯৭০ সালে যখন দুর্বোধ্য চিত্রকলার একটা জগৎ সৃষ্টি হয়েছিল, তার সঙ্গে কিন্তু শিল্পী শাহাবুদ্দিন গাট ছাড়া বাঁধেননি। উনি নিজের একটি চিত্রজগৎ সৃষ্টি করেছেন। তার জীবনটিই এক বিশাল ক্যানভাস। এ সময় তিনি রাজশাহীতে রাসিক মেয়রের পক্ষ থেকে শিল্পী শাহাবুদ্দিনের নামে নির্মাণ করতে যাওয়া গ্যালারিটি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে স্থাপনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রাবির চারুকলা অনুষদের অধিকর্তা প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব কবির বিন আনোয়ার, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. হুমায়ন কবীর, সাবেক  মন্ত্রিপরিষদ সচিব কবির বিন আনোয়ারের সহধর্মিণী তৌফিকা আনোয়ার।

আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইতিহাস সমিতির সভাপতি ও রাবির ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল কাশেম ও আইএফআইসি ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিতাংক দেবদীপ দত্ত। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন আইআরসি ও শিলালীপি‘র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাহিদুল হাসান সুমন।

এদিকে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের পর আলোকচিত্রগুলো ঘুরে দেখেন চিত্রশিল্পী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন আহমেদ ও রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২৩
এসএস/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।