ঢাকা, সোমবার, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২২ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

মেয়েসহ আত্মগোপনে থাকা ইমরান শরিফ পুলিশ হেফাজতে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২৩
মেয়েসহ আত্মগোপনে থাকা ইমরান শরিফ পুলিশ হেফাজতে

ঢাকা: জাপানি ছোট মেয়েসহ আত্মগোপনে থাকা বাবা ইমরান শরিফকে খুঁজে বের করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। পরে তাদের পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আদালতের নির্দেশনা উপেক্ষা করে ছোট মেয়েকে নিয়ে ইমরান শরিফ আত্মগোপনে ছিলেন।  

বুধবার (১ ফেব্রুয়ারি) ভোরে র‌্যাবের একটি দল রাজধানীর কালাচাঁদপুর থেকে জাপানি ছোট মেয়েসহ বাবা ইমরানকে আটক করে।

এর আগে, দুই শিশু সন্তানকে তাদের মা জাপানি চিকিৎসক নাকানো এরিকোর জিম্মার রাখার আদেশ দেন আদালত। গত রোববার (২৯ জানুয়ারি) ঢাকার দ্বিতীয় অতিরিক্ত সহকারী জজ ও পারিবারিক আদালতের বিচারক দুরদানা রহমান এ রায় ঘোষণা করেন। তবে সেই রায় উপেক্ষা করে আত্মগোপন করায় ছোট মেয়েসহ বাবা ইমরান শরিফকে হেফাজতে নিয়ে গুলশান থানা পুলিশের কাছে বুঝিয়ে দেয় র‌্যাব।

র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বাংলানিউজকে বলেন, আদালতের রায় ছিল মায়ের কাছে থাকবে জাপানি দুই সন্তান। কিন্তু রায় প্রতিপালেন থানা পুলিশ বাবাসহ ছোট মেয়েকে খুঁজে পাচ্ছিল না। আদালতের রায় উপেক্ষা করে মায়ের কাছে সন্তানকে হস্তান্তর না করে ছোট মেয়েসহ বাবা আত্মগোপনে চলে যান। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা চালায়। পরে রাজধানীর গুলশান থানাধীন কালাচাঁদপুর এলাকা থেকে বাবা ইমরান শরিফকে ছোট মেয়েসহ হেফাজতে নেওয়া হয়।  

পরে তাদের গুলশান থানা পুলিশে কাছে হস্তান্তর করা হয়।  

এদিকে, আদালতের রায়ের পর্যবেক্ষণে বিচারক উল্লেখ করেন, শারীরিক, মানসিক ও পারিপার্শ্বিক তথা বাচ্চাদের মঙ্গল কার কাছে নিশ্চিত হবে রায়ে সেটির ওপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। দুই সন্তান বাবার কাছে থাকা মঙ্গল হবে বলে বাদী যে দাবি করেছেন, সেটি প্রমাণ করতে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন।

রায়ের পর্যবেক্ষণে বিচারক আরও বলেন, নাবালিকা দুই শিশুর সর্বশেষ বসবাসের স্থান জাপান। তাদের মা জাপানের চিকিৎসক। তাই মায়ের হেফাজতেই শিশুরা শারীরিক-মানসিক নিরাপত্তায় থাকবে বলে মনে করেন আদালত।

রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন মা। এছাড়া, বড় মেয়ে নাকানো জেসমিন মালিকাও এ রায়ে খুশি।

অন্যদিকে, আদালতের রায় অমান্য করে জাপানি মা নাকানো দ্বিতীয়বারের মতো তার বড় মেয়ে জেসমিন মালিকাকে নিয়ে গত রাতে পালানোর চেষ্টা করেন।  

আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকায় ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ফিরিয়ে দিয়েছে। তবে তিনি কোন দেশে যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন তা প্রাথমিকভাবে জানা যায়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০১, ২০২৩
এসজেএ/এসআইএস 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।