ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

‘এমপির নির্যাতনের বিচার চাই’ প্ল্যাকার্ড নিয়ে রাস্তায় আ. লীগ নেতা!

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০২৩
‘এমপির নির্যাতনের বিচার চাই’ প্ল্যাকার্ড নিয়ে রাস্তায় আ. লীগ নেতা!

রাজশাহী: রাজশাহীতে সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ তুলে বুকে প্ল্যাকার্ড নিয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়েছেন সুরঞ্জিত সরকার (৪৩) নামের এক আওয়ামী লীগ নেতা। প্রধানমন্ত্রীর কাছে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনের এমপি আয়েন উদ্দিনের বিচার চেয়ে বুধবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেলে মহানগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে দাঁড়ান তিনি।

সুরঞ্জিত সরকার (৪৩) রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের মোহনপুর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক। এছাড়া তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শ্রমবিষয়ক সম্পাদক।

সুরঞ্জিতের অভিযোগ, তিনি এমপি আয়েন উদ্দিন ও তার দুলাভাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতির নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। গত ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েও পরাজিত হন সুরঞ্জিত। এমপি আয়েন উদ্দিনই তাকে ফেল করিয়েছেন।

সুরঞ্জিতের বুকে ঝোলানো প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট বিচার চাই। রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) এমপি আয়েন উদ্দিন ও তার দুলাভাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নির্যাতনের শিকার। ১. ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলে বিরোধিতা করে ফেল করানো। ২. এমপির ক্যাডার বাহিনী দিয়ে হামলা করে হত্যার চেষ্টা ও অর্ধ পঙ্গু বানানো এবং ৩. ২০২১ সালে ইউনিয়ন নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন চাইলে হিন্দু জাতি ধর্ম তুলে কটূক্তি ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করা। আর এই নির্যাতনের বিচারের দাবিতেই তার অবস্থান কর্মসূচি।

জানতে চাইলে সুরঞ্জিত সরকার বলেন, এমপি আয়েন উদ্দিন ও তার দুলাভাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুস সালাম প্রকাশ্যে নৌকার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিলেন। তাই আমি নৌকা পেয়েও ফেল করি। পরের নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন চাইলে এমপি আমাকে জাত-ধর্ম তুলে গালিগালাজ করেন। এমপি তার ক্যাডার বাহিনী দিয়ে আমার ওপর হামলা করে। সেই হামলায় আমি প্রায় মারাই যাচ্ছিলাম। ভারতে গিয়ে চিকিৎসা করে কোনোরকমে বেঁচে আছি। এখনও বছরে কয়েকবার চিকিৎসা করতে যেতে হয়। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছেই এমপি ও তার দুলাভাইয়ের বিচার চাই।

তবে নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এমপি আয়েন উদ্দিন। তিনি বলেন, ওই ব্যক্তি মানসিকভাবে অসুস্থ। আর তাকে নির্যাতন যারা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে সেই সময়ই থানায় মামলা দায়ের করেছে। এজাহারে কে কে আসামিরা তা দেখেন। উনি একটা পুকুর নিয়ে গন্ডগোল করে মার খেয়েছেন। এখন দায় চাপাচ্ছেন আমার ওপর। অথচ তার চিকিৎসার জন্য আমিই টাকা দিয়ে ভারতে পাঠিয়েছিলাম।

বাংলাদেশ সময়: ২১২২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০২৩
এসএস/এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa