ঢাকা, রবিবার, ২২ মাঘ ১৪২৯, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৩ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

জমির বিরোধে মেঝো ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করল ছোট ভাই  

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২২
জমির বিরোধে মেঝো ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করল ছোট ভাই   ভাইয়ের হাতে ভাই খুনের ঘটনায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরের জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মেঝো ভাই তোফায়েল আহম্মদকে (৬০) দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছোট ভাই হোসেন আহম্মদ (৫৫)।  

বুধবার (৩০ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের লাহারকান্দি গ্রামের দমদমা দিঘিরপাড়ে এ ঘটনা ঘটে।

 

নিহত তোফায়েল ও অভিযুক্ত হোসেন ওই এলাকার আজিজ উল্যা দফাদার বাড়ির মৃত মমতাজুর রহমানের ছেলে।  

এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত হোসেন আহম্মেদকে আটক করেছে। তিনি ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, তোফায়েল আহম্মদ ঢাকায় ব্যবসা করতেন। সে সুবাধে তিনি স্ত্রীসহ দুই মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে সেখানেই থাকতেন। তবে ব্যবসায় লোকসান হওয়ায় তিনি মানসিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়েন। তিনি মাঝেমধ্যে গ্রামের বাড়িতে এসে ভাইদের কাছ থেকে পৈত্রিক সম্পত্তি দাবি করতেন। এতে দীর্ঘদিন থেকে ছোটভাই হোসেন আহম্মদের সঙ্গে বিরোধ দেখা দেয়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে প্রায় ঝগড়া হতো। বুধবার সকালের দিকে ছোটভাই হোসেন আহম্মদের স্ত্রী জেসমিন বেগমের সঙ্গে ঝগড়া করেন তোফায়েল। সন্ধ্যায় হোসেন আহম্মদ বাড়িতে এলে স্ত্রী জেসমিন তার কাছে মেঝো ভাইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ দেন।  

সন্ধ্যায় তোফায়েল বাড়ির পাশের দমদমা দিঘিরপাড় জামে মসজিদ মাগরিবের নামাজ ও রাতে এশার নামাজ আদায় করে মসজিদের পাশের একটি চা দোকানে বসে ছিলেন।  

স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়ায় জের ধরে রাত সাড়ে ৮টার দিকে হোসেন আহম্মদ পুনারায় ঝগড়া শুরু করেন। একপর্যায়ে দা দিয়ে তোফায়েলের দু’পায়ে আঘাত করেন হোসেন আহম্মদ। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়।  

এ ঘটনায় জেলা পুলিশ সুপার মো. মাহফুজ্জামান আশরাফসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। রাত ১১টা পর্যন্ত নিহতের মরদেহ ঘটনাস্থলেই ছিল। পুলিশ মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেছে।  

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মোসলেহ উদ্দিন বাংলানিউজকে বলেন, নিহত তোফায়েলের দুই পায়ে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।  

পুলিশ সুপার মো. মাহফুজ্জামান আশরাফ বাংলানিউজকে বলেন, ছোট ভাইয়ের হাতে মেঝো ভাই খুন হয়েছে। খবর পেয় পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে এসে ঘাতক হোসেন আহম্মদকে আটক করে। তাকে জিজ্ঞাসবাদ করা হবে। হত্যকাণ্ডের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।  

বাংলাদেশ সময়: ২৩৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২২
এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa