ঢাকা, শনিবার, ১৩ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, একজনের মৃত্যুদণ্ড

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২২
শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যা, একজনের মৃত্যুদণ্ড আদালতের রায়: প্রতীকী ছবি

ঢাকা: রাজধানীর বাড্ডায় সাড়ে তিন বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে শিপন নামে এক আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।  

বুধবার (৩০ নভেম্বর) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক সাবেরা সুলতানা খানম এ রায় দেন।

এছাড়া আসামিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

রায় ঘোষণার সময় আসামি শিপন আদালতে উপস্থিত ছিলেন৷ রায় ঘোষণা শেষে তাকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

সংশ্লিষ্ট ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আফরোজা ফারহানা আহমেদ (অরেঞ্জ) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।  

রায়ে আদালত বলেন, শিশুরা যদি তাদের আশপাশের প্রতিবেশীদের কাছে নিরাপদ না থাকে তা সমাজের জন্য অশনিসংকেত। আসামি একজন পূর্ণ বয়স্ক ব্যক্তি হিসেবে নিজের পাশবিক স্বার্থ চরিতার্থ করতে ভিকটিমের জীবনে কালিমা লেপন করেছে এবং তার জীবন প্রদীপ নিভিয়ে দিয়েছে। আসামির ওই অপরাধের জন্য নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০-এর ৯(২) ধারায় বর্ণিত সর্বোচ্চ শাস্তি তার প্রাপ্য। আসামিকে ওই ধারায় মৃত্যুদণ্ড এবং ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হলো।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ৩০ জুলাই শিপন নিজের বাসায় ছিলেন। এ সময় ভুক্তভোগী শিশুকে তার বাসার সামনে দেখেন। তখন আসামি শিশুটিকে ভাত খাওয়ান। খাওয়া শেষে ধর্ষণ করেন। শিশুটি চিৎকার করলে তার মুখ ও গলাচেপে ধরে রাখেন। শিশু নিস্তেজ হয়ে পড়লে আসামি তাকে বাথরুমে ফেলে রেখে চলে যান।  

ঘটনার পরদিন ৩১ জুলাই শিশুটির বাবা মেহেদী হাসান বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় মামলা করেন। ২০১৯ সালের ২৬ জানুয়ারি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের এসআই রাশেদুল আলম আদালতে চার্জশিট জমা দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২২
কেআই/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa