ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

মালয়েশিয়া

মালয়েশিয়ায় মোবাইল ক্যাম্পে এমআরপির ফিঙ্গারিং

কায়সার হামিদ হান্নান, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৫
মালয়েশিয়ায় মোবাইল ক্যাম্পে এমআরপির ফিঙ্গারিং ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মালয়েশিয়া: মালয়েশিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের হাতে দ্রুত মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এআরপি) পৌঁছে দিতে চলছে ফিঙ্গার প্রিন্ট। দেশটির জহর প্রদেশের রাজধানী জহর বাহরুতে বাংলাদেশ কমিউনিটি অফিসে মোবাইল ক্যাম্পে এ কার্যক্রম চলছে।



গত ১৮ সেপ্টেম্বর এমআরপির মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ হাইকমিশনার মো. শহীদুল  ইসলাম।

ক্যাম্পিং উদ্বোধনের পর জহর বাহরু মোবাইল ক্যাম্পে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ব্যাপক সমাগম হচ্ছে। ১৯ ও ২০ সেপ্টেম্বর বিপুলসংখ্যক প্রবাসী সেখানে ভিড় জমান।

ফিঙ্গার প্রিন্ট দিতে ক্যাম্পে আসা ময়মনসিংহের ইশ্বরগঞ্জের মাসুদ বাংলানিউজকে বলেন, দূতাবাসে যেতেই শুধু খরচ হতো দেড় থেকে দুইশ’ রিঙ্গিত। এখন কেবল ব্যাংক ড্রাফট ১১৬ রিঙ্গিতের বিনিময়ে জহর বাহরুতেই এমআরপি করতে পারছি।

তিনি দূতাবাসের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানান। তার মতো এমআরপির মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের উদ্যোগকে স্বাগত জানান অন্য বাংলাদেশিরাও।

বাংলাদেশ দূতাবাসের এ কার্যক্রমে সার্বিক সহযোগিতার কথা জানান ‘জহর প্রদেশ বাংলাদেশ কমিউনিটি’র সভাপতি মো. তরিকুল ইসলাম রবিন, সাধারণ সম্পাদক এম জে আলম ও সাংগঠনিক সম্পাদক মো. তরিকুল ইসলাম আমিন। তারা জানান, জহরে প্রায় দুই লাখ বাংলাদেশি আছেন।

সহজে এমআরপি পেতে এ উদ্যোগের জন্য তারা হাইকমিশনার মো. শহিদুল ইসলাম, ডেপুটি হাইকমিশনার মো. ফায়সাল আহমেদ, ফার্স্ট সেক্রেটারি এস কে শাহীনসহ দূতাবাসের কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ জানান।

দূতাবাস কর্মকর্তারা জানান, তারা প্রবাসীদের হাতে সহজে এমআরপি পৌঁছে দিতে সর্বোচ্চ আন্তরিকতা দিয়ে কাজ করছেন। আবেদনের জন্য আগতদের একদিনের মধ্যেই জন্ম নিবন্ধন জমা নেওয়া এবং ফিঙ্গার প্রিন্ট গ্রহণ ও ছবি তোলার কাজ সম্পন্ন করার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। কেউ যেন এমআরপির আওতার বাইরে না থাকেন সেজন্য জহরের কতাতিঙ্গি, তিরাম, মাসাই, পন্তিয়ান, তামান ইউ, গেলাংপাতাহ, পাসির গুডাং, স্কুডাই, বান্ডার জহুরবারু, বাতু পাহাতসহ বিভিন্ন এলাকায় লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে।

দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি এস কে শাহীন বাংলানিউজকে জানান, মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের মাধ্যমে শুধু জহর নয়, মালয়েশিয়ার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে থাকা সকল প্রবাসীর হাতে এমআরপি পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এক মাসের মধ্যেই গ্রাহকের হাতে এমআরপি দেওয়ার চেষ্টা করছে দূতাবাস।

আগামী ২৪ নভেম্বর শেষ হচ্ছে সাধারণ পাসপোর্টের কার্যকরিতা। ওই দিনের পর থেকে কেউ এমআরপি ছাড়া বিদেশে যেতে কিংবা অবস্থান করতে পারবেন না। কিন্তু এমআরপি এখনও হাতে পাননি কয়েক লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি। এমন পরিস্থিতিতে নির্ধারিত সময়ে এমআরপি প্রদানে মালয়েশিয়ায় মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের উদ্যোগ নেয় দূতাবাস।

বাংলাদেশ সময়: ১২০৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৫
এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মালয়েশিয়া এর সর্বশেষ

Alexa