ঢাকা, রবিবার, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

লন্ডন

বাংলাদেশের জন্য ইইউ উন্নয়ন বাজেট সুরক্ষিত রাখতে চায় ব্রিটেন

সৈয়দ আনাস পাশা, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩৩৩ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০১৬
বাংলাদেশের জন্য ইইউ উন্নয়ন বাজেট সুরক্ষিত রাখতে চায় ব্রিটেন

লন্ডন: ব্রিটেনের ইউরোপে থাকা-না থাকা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আয়োজিত আসন্ন গণভোটে ‘ইয়েস’ পক্ষে ভোট দেওয়ার জন্য ব্রিটেনে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের আহ্বান জানিয়েছেন এশিয়া ও কমনওয়েলথ বিষয়ক ফরেন অফিস মিনিস্টার হুগো সুয়ার।

তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) থাকলে ব্রিটেন নিরাপদ, শক্তিশালী ও ভালো থাকবে।

যা বাংলাদেশি এবং কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর মানুষসহ সবার জন্যেই লাভজনক।

সোমবার (২৩ মে) স্থানীয় সময় বিকেলে ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিস থেকে বাংলানিউজসহ অন্যান্য সংবাদ মাধ্যমগুলোতে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ আহ্বান জানান হুগো সুয়ার।

এতে আরও বলা হয়, আসন্ন গণভোটের ফলাফল শুধু ব্রিটেনে বসবাসরতদের জীবন মানেই প্রভাব ফেলবে না, বাংলাদেশে ফেলে আসা তাদের সহায় সম্পদ ও আত্মীয় স্বজনের জীবনেও এর প্রভাব থাকবে।

বার্তায় ফরেন অফিস মিনিস্টার বাংলাদেশি পণ্যের শুল্কমুক্ত প্রবেশাধিকার দেওয়ায় ইইউ’র প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করে জানান, এই প্রবেশাধিকারে ব্রিটেনের সহযোগিতা ছিলো।

সম্প্রতি বাংলাদেশের অর্থনীতির ক্রমবর্ধমান ধারার প্রশংসা করে ব্রিটিশ ফরেন অফিস মিনিস্টার এধারা অব্যাহত রাখতে ব্রিটেনের মতো বন্ধু রাষ্ট্রটির ইইউতে থাকা জরুরি বলে উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, অস্ট্রেলিয়া ও ইন্ডিয়ার মতো অন্যান্য কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলো যাতে শুল্কমুক্ত বাণিজ্যের সুযোগ পায় সে লক্ষ্যে ইইউ’র উপর ব্রিটেন চাপ অব্যাহত রাখবে।   ইইউ’র বিশাল উন্নয়ন বাজেট বাংলাদেশের জন্য সুরক্ষিত রাখতে ব্রিটেন সহযোগিতা করতে চায়।

দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা ও নাইজেরিয়াসহ অন্যান্য দেশগুলোর ক্ষেত্রে একই ভূমিকা থাকবে তার দেশের, যোগ করেন হুগো।

আগামী ২৩ জুন ইইউ গণভোট অনুষ্ঠিত হবে। এতে ব্রিটেনের জনগণ সিদ্ধান্ত দেবেন তাদের দেশ ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের সাথে থাকবে কি না।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৩১ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০১৬
এটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa