ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৮, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২ সফর ১৪৪৩

লন্ডন

জন্মদিনে লন্ডনে শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় সিক্ত গাফফার চৌধুরী

সৈয়দ আনাস পাশা, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯২৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৫
জন্মদিনে লন্ডনে শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় সিক্ত গাফফার চৌধুরী ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লন্ডন: ৮২তম জন্মদিনে লন্ডনে ফুলেল শুভেচ্ছা, শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত হলেন একুশের গানের রচয়িতা বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সাহিত্যিক আবদুল গাফফার চৌধুরী।

চ্যানেল আই ইউরোপ আয়োজিত ‘যতদিন বেঁচে আছো মুক্ত হয়ে বাঁচো, আকাশ ও মাটির কণ্ঠে শুনি যেন তুমি বেঁচে আছো’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে ভক্ত-শুভানুধ্যায়ীরা শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত করেন বাঙালির ইতিহাসের এই সূর্য সন্তানকে।



শনিবার (১২ ডিসেম্বর) স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৫টা থেকে দুই ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠানটি লাইভ প্রচার করে চ্যানেল আই ইউরোপ।

চ্যানেল আই ইউরোপের সিইও রেজা আহমদ ফয়সাল চৌধুরী শুয়েবের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে সাংবাদিক, রাজনীতিক, সংষ্কৃতিকর্মীসহ বাঙালি কমিউনিটির শীর্ষ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

গাফ্ফার চৌধুরীকে অগ্রসর চিন্তার পথিকৃত আখ্যায়িত করে ভক্ত-শুভানুধ্যায়ীরা বলেন, তিনি বাঙালি জাতির বাতিঘর, এই বাতিঘর মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার আলোকে আলোকিত করে বাংলাদেশকে। মৌলবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতা বিরোধী আন্দোলনে গাফ্ফার চৌধুরী বাঙালির প্রেরণা। তিনি কালের স্বর্ণোজ্জ্বল এক দীপ্যমান নক্ষত্র, আমাদের ইতিহাসের এক রত্নভাণ্ডার।

এ সময় গাফফার চৌধুরী বলেন, জীবনের শেষ প্রান্তে এসেও আপনাদের ভালোবাসা আমাকে আরও বেঁচে থাকার লোভ দেখায়। আমি দেশ ও আপনাদের জন্যে কী করতে পেরেছি তা জানি না, তবে দেশ ও আপনারা আমাকে অনেক দিয়েছেন। বাঙালির উজাড় করে দেয়া ভালোবাসা এখনও আমাকে শক্তি যোগায়, প্রেরণা দেয়। যতোদিন বেঁচে আছি, আপনাদের এই ভালোবাসা নিয়েই বেঁচে থাকতে চাই।

আলোচনা শেষে অতিথিদের নিয়ে জন্মদিনের কেক কাটেন গাফ্ফার চৌধুরী।  

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন- ব্রিটেনে মুক্তিযুদ্ধের প্রবীন সংগঠক সুলতান শরীফ, বাংলাদেশ হাইকমিশনের মিনিস্টার প্রেস নাদিম কাদির, সাপ্তাহিক জনমতের প্রধান সম্পাদক সৈয়দ নাহাস পাশা, সাংবাদিক ইসহাক কাজল, মতিয়ার চৌধুরী, আনসার আহমেদ উল্লা, সংস্কৃতিকর্মী গোলাম মোস্তফা, সাজিয়া স্নিগ্ধা, কবি দিলু নাসের, রাজনীতিক খসরুজ্জামান খসরু, লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশন কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম কবির, নির্মাতা মইনুল হোসেন মুকুল, যুবনেতা জামাল খান, কমিউনিটি নেতা নুর উদ্দিন আহমেদ, সাংবাদিক জুয়েল রাজ, শাহ মোস্তাফিজুর রহমান বেলাল, মোহাম্মদ শাহেদ রাহমান, রাকিব রুহেল, আনজুমান আরা অঞ্জু প্রমুখ।

একুশের গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানোর একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি...’ এর রচয়িতা, বাংলাদেশের সাংবাদিকতা জগতের জীবন্ত কিংবদন্তী আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী ১৯৩৪ সালের ১২ ডিসেম্বর বরিশালে জন্মগ্রহণ করেন।  

বাংলাদেশ সময়: ০৯২৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৫
আরএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa