ঢাকা, শনিবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৮, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬ সফর ১৪৪৩

লন্ডন

টাওয়ার হ্যামেলেটসের সাবেক মেয়র লুৎফুরের সম্পত্তি ফ্রিজের নির্দেশ

সৈয়দ আনাস পাশা, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৫০ ঘণ্টা, জুলাই ৮, ২০১৫
টাওয়ার হ্যামেলেটসের সাবেক মেয়র লুৎফুরের সম্পত্তি ফ্রিজের নির্দেশ লুৎফুর রহমান

লন্ডন: লন্ডনের বাঙালি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামেলেটস বারার প্রথম ও সাবেক নির্বাহী মেয়র লুৎফুর রহমানের সম্পত্তি ফ্রিজের নির্দেশ দিয়েছেন ব্রিটেনের উচ্চ আদালত।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) হাইকোর্টের এক শুনানির সময় ভোট জালিয়াতি মামলায় পরাজিত হওয়ার পর বাদীর খরচ বাবদ আদালতের নির্দেশকৃত দুই ল‍াখ ৫০ হাজার পাউন্ড পরিশোধ না করায় বিচারক মি. এডিস লুৎফুর রহমানের তিন ল‍াখ ৫০ হাজার পাউন্ড পর্যন্ত সম্পত্তি ফ্রিজের নির্দেশ দেন।



চলতি বছরের ২৩ এপ্রিল নির্বাচনী আদালতের এক আদেশে ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত মেয়র নির্বাচনে জালিয়াতির অপরাধে ঐ নির্বাচন বাতিল করে তৎকালীন মেয়র লুৎফুর রহমানকে মেয়র পদ থেকে অপসারণ করেন নির্বাচন কমিশনার রিচার্ড মাওরি কিউসি।

ঐ আদেশে ৫ বছরের জন্য লুৎফুর রহমানকে নির্বাচনের অযোগ্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশনার মি. মাওরি তার (লুৎফর) বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের চার বাদীর আইনি খরচ আনুমানিক ৫ লাখ পাউন্ডের মধ্যে দুই ল‍াখ ৫০ হাজার পাউন্ড অবিলম্বে পরিশোধের নির্দেশ দেন লুৎফুর রহমানকে।

নির্দেশের পর দীর্ঘ আড়াই মাস পার হলেও নির্বাচনী আদালতের নির্দেশকৃত বাদীর আইনি খরচ পরিশোধ না করায় মঙ্গলবার এক শুনানিতে বাদীর আইনজীবী ব্যারিস্টার ফ্রান্সিস হওয়ার বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন।

এখন পর্যন্ত লুৎফুর রহমান বাদীর আইনি খরচের কোনো অর্থই প্রদান করেননি, ব্যারিস্টার ফ্রান্সিস হওয়ার আদালতকে এমনটি জানালে বিচারক মি. এডিস লুৎফুর রহমানের তিন ল‍াখ ৫০ হাজার পাউন্ড পর্যন্ত সম্পত্তি ফ্রিজের আদেশ দিয়ে বিগত ৫ বছরের আয়-ব্যয়ের হিসেব দাখিল করার নির্দেশ দেন।

এ সময় লুৎফুর রহমানকে তার বিগত ৭ বছরের ট্যাক্স রিটার্ন দাখিলেরও আদেশ দেন বিচারক মি. এডিস। বিচারক তার আদেশে এটিও বলেন যে, আদালতের আদেশ মানা হয়েছে কি-না ভবিষ্যতে এটি পর্যালোচনা করবেন। সম্পত্তি ফ্রিজের আদেশের সময় লুৎফুর রহমান আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। ব্যারিস্টার অ্যাডওয়ার্ড ম্যাককিয়ারন্যান তার পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করেন।
 
গত ২৩ শে এপ্রিল ভোট জালিয়াতির দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়ে লুৎফুর রহমান মেয়র পদ থেকে অপসারিত হন। আদালতের রায়ে তাকে পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচনে নিষিদ্ধ করলে ভোটার তালিকা থেকেও তার নাম বাদ দেওয়া হয়। ফলে গত ১১ জুনের মেয়র পদের পুর্ননির্বাচনে তিনি প্রার্থী হতে পারেননি এবং আগামী মেয়র নির্বাচনেও প্রার্থী হতে পারবেন না। নতুন কোনো নির্বাচনে প্রার্থী হতে হলে তাকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৫০ ঘণ্টা, জুলাই ০৮, ২০১৫
জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa