ঢাকা, শনিবার, ১৩ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

লাইফস্টাইল

ডায়াবেটিক নিয়ে রোজাদারের যত প্রশ্ন 

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০২১
ডায়াবেটিক নিয়ে রোজাদারের যত প্রশ্ন 

অনেকেই স্বাস্থ্যগত নানা সমস্যায় ভোগেন। এগুলোর মধ্যে আছে উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, ডায়বেটিসসহ নানা অসুস্থতা।

রমজান মাসে তাদের রোজা রাখা নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্ন ঘুরতে থাকে। যেমন, ডায়াবেটিক হলে ইনসুলিন কীভাবে দেবে রোজা রেখে, ওষুধ কখন খাবে, কী কী নিয়ম মানতে হবে এমন জিজ্ঞাসার উত্তরগুলো জেনে নিন: 

রমজানে সাধারণ মানুষের চেয়ে ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়, কারণ ডায়াবেটিক রোগটি খাদ্যগ্রহণ ও বর্জনের সঙ্গে সম্পৃক্ত একটি অসুখ।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ভৌগলিক অবস্থান ভেদে ১২ ঘণ্টা থেকে ২১ ঘণ্টা পর্যন্ত রোজাদারদের পানাহার থেকে বিরত থাকতে হয়। মূলত এতো দীর্ঘ সময় ডায়াবেটিক রোগীর ক্ষেত্রে অনেক সময় ঝুঁকিপূর্ণ এবং অনেক সময় জীবনের প্রতি হুমকি স্বরূপ দেখা দেয়।  
রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা কমে যাওয়া বা হাইপোগ্লাইসেমিয়া: যে সব রোগীরা নিয়মিত ইনসুলিন গ্রহণ কিংবা অন্যান্য ডায়াবেটিসের ওষুধ খেয়ে থাকেন, রোজায় তাদের অনেক সময় ধরে অভুক্ত থাকার ফলে হাইপোগ্লাইসেমিয়া বা রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ কমে যেতে পারে। ডা. মোহাম্মদ শরীফ মহিউদ্দিন 

ডায়াবেটিস রোগীদের বাসায় খুব স্বাভাবিকভাবেই গ্লুকোজ মাপার মেশিন গ্লুকোমিটার থাকে। যদি কোনো রোগী খুব ঘামতে থাকেন, অনেক দুর্বল অনুভব করেন, মাথা ঘোরাতে থাকে তাহলে তার রক্তের গ্লুকোজ দ্রুত মাপতে হবে এবং গ্লুকোজ মাত্রা যদি ৪ মিলি মোল/লিটার এর কম পাওয়া যায় তাহলে দ্রুত রোজা ভঙ্গ করে খাবার গ্রহণ ও চিনির পানি গ্রহণ করতে হবে।

হাইপোগ্লাইসেমিয়া এড়ানোর জন্য দিনের বেলা শারীরিক পরিশ্রম কমিয়ে দেওয়া এবং রাতের বেলা খাবার গ্রহণের পর পরিশ্রম বাড়িয়ে দেওয়া একটি উপযুক্ত সমাধান। খুব দ্রুত রক্তে গ্লুকোজ কমিয়ে দেয় এমন ওষুধ গ্রহণের সময়, ইনসুলিনের পরিমাণ এবং আপনার চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে পরিবর্তন করে নিন।  

রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বেড়ে যাওয়া বা হাইপার গ্লাইসেমিয়া: রমজানে ডায়াবেটিস রোগীর রক্তে গ্লুকোজ বেড়ে যাওয়ারও ঝুঁকি থাকে। দীর্ঘক্ষণ না খেয়ে থাকায় ইফতারে প্রয়োজনের অতিরিক্ত খাবার গ্রহণের ফলে গ্লুকোজের মাত্রা বেড়ে যেতে পারে। এ সময়ে রোগীদের ওজন বৃদ্ধি পাওয়া একটি স্বাভাবিক ঘটনা। যেহেতু অনেক পরিবার ইফতার গ্রহণকে উৎসব হিসেবে পালন করে থাকে। ঘন ঘন প্রস্রাব, গলা শুকিয়ে আসা, খুব তৃষ্ণা অনুভব করা, মাথা ব্যথা, চোখে ঝাপসা দেখা হাইপারগ্লাইসেমিয়ার লক্ষণ। রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ যদি ১১ মিলিমোল/লিটারের বেশি পাওয়া যায় এবং এ ধরনের লক্ষণ প্রকাশ পায় তাহলে সঙ্গে সঙ্গে তার চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।  
পানি শূন্যতা: গরমের সময় পানি শূন্যতার বেশি দেখা দেয় এবং এ পানি শূন্যতা ডায়াবেটিক রোগীর ক্ষেত্রে অনেক বেশি হয়ে থাকে এবং এটি রোগীর জন্য অনেক ক্ষতিকর। পানি শূন্যতা এড়াতে রাতের বেলা বেশি বেশি (৩ লিটার) পরিমাণ পানি পান করা উচিত।

কেমন হবে খাদ্য তালিকা: রমজানে খাদ্য তালিকায় বড় ধরনের পরিবর্তন আসে। ডায়াবেটিস রোগীরা যেহেতু একটি বিশেষ খাদ্য তালিকা মেনে চলেন তাই রমজানের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ খাদ্যাভাস গড়ে তুলতে হবে।  
ইফতারে ভাজাপোড়া ও অতিরিক্ত তৈলাক্ত খাবার বর্জন করতে হবে। তবে খেজুরের সঙ্গে যেহেতু ধর্মীয় বিষয় জড়িত সেক্ষেত্রে ১টি কিংবা ২টি খেজুর গ্রহণ করা যেতে পারে। ইফতারের সময় ডায়াবেটিক চিনি দিয়ে ইসবগুলের ভুষি, তোকমা, লেবু কাঁচা আম বা তেঁতুল শরবত ডায়াবেটিক রোগীর জন্য উপকারি। ভুষি কোষ্ঠকাঠিন্য দূরে সাহায্য করে থাকে। কচি ডাব ছাড়া অন্য কোনো মিষ্টি জাতীয় ফলের রস বর্জন করতে হবে। একেবারে ইফতারিতে খাবার গ্রহণ না করে অল্প অল্প করে সেহরি পর্যন্ত খেলে ডায়াবেটিক রোগীর রক্তে গ্লুকোজ হঠাৎ বেড়ে যাবে না। সেহরি একেবারে শেষ সময়ে গ্রহণ করতে হবে, সেহরিতে ডিম, মাছ, মাংস জাতীয় খাবার খাওয়া যেতে পারে পরিমাণ মতো। খাবার শেষে দুধ পান করলে রোগীরা বেশি শক্তি পাবেন।

ওষুধ নিয়ে ভাবনা: সকাল বেলার ওষুধ ইফাতারিতে এবং রাতের ওষুধ সেহরিতে গ্রহণ করতে হবে এবং ইনসুলিনের মাত্রা হবে সাধারণ সময়ের চেয়ে অর্ধেক। তবে অবশ্যই ওষুধ পরিবর্তন ও পরিমার্জনের ক্ষেত্রে আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

সতর্কতা: ডায়াবেটিক রোগীদের রমজানে দিনের বেলা অবশ্যই একবার হলেও রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা পরীক্ষা করা উচিত। আর রক্তে গ্লুকোজ মাত্রা দেখলে রোজা ভঙ্গ হয় না বলে ইসলামী চিন্তাবিদগন রায় দিয়েছেন।  

ডা. মোহাম্মদ শরীফ মহিউদ্দিন 
ডায়াবেটিক গবেষক ও চিকিৎসক 
আইচি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, জাপান।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ২০, ২০২১
এসআইএস 
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa