bangla news

জোয়ার-ভাটা ও পতাকার রঙ দেখে সাগরে নামুন 

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-২৭ ১২:১৯:০৭ পিএম
জোয়ার-ভাটা ও পতাকার রঙ

জোয়ার-ভাটা ও পতাকার রঙ

বর্ষায় পাহাড় আর শীতে সাগরের সৌন্দর্য আমাদের মুগ্ধ করে। বছরের শেষ ও নতুন বছরের শুরু অনেকেই উপভোগ করতে চান সাগরের বুকে। আর তাই পর্যটন নগরী কক্সবাজারে এখন উপচে পড়া ভিড়। সাগর দেখে আনন্দে মেতে ওঠেন ছেলে-বুড়ো সবাই। 

তবে এই বাঁধ ভাঙা আনন্দ সামান্য অসতর্কতায় হয়ে যেতে পারে বড় দুর্ঘটনার কারণ। সাগরে বেড়াতে গেলে পানিতে নামার আগে অবশ্যই জেনে নিতে হবে জোয়ার-ভাটার সময়। 

জোয়ার ও ভাটার সময় প্রতিদিন সকাল ১০টায় লিখে দেওয়া হয়। এছাড়া ট্যুরিস্ট পুলিশরা মাইক দিয়ে কিছুক্ষণ পরপর ট্যুরিস্টদের সতর্ক করেন।  
 
সাগরে প্রতি ২৪ ঘণ্টায় দু’টি জোয়ার এবং দু’টি ভাটা হয়। এক একটির স্থায়িত্ব ছয় ঘণ্টার মতো। তবে জোয়ার-ভাটার সময় পরিবর্তনশীল। পূর্ণ জোয়ারের পর পানি কিছুটা স্থির হয়ে ঘণ্টা খানেক থাকার পর ভাটা শুরু হয়। এ স্থির সময়ে সাগরে না নামাই ভালো।

সেই সঙ্গে নিরাপদে সাগরের পানিতে নেমে আনন্দ উপভোগের আগে জানতে হবে ফ্ল্যাগের (পতাকার) নির্দেশনা। যেমন: 

•    সাগরপাড়ে হলুদ পতাকা টাঙানো থাকলেই কেবল সাগরে নামার উপযোগী 
•    লাল ফ্ল্যাগ থাকে তাহলে সাগরে নামতে মানা 
•    কমলা রঙের বেলুন ওড়ানো থাকে তাহলে বুঝতে হবে, ভাসমান কোনো কিছু নিয়ে নামা যাবে না। কারণ, এসময়ে ভাসমান বস্তুটি (টায়ার বা অন্য কিছু) সাগর গ্রাস করে নিতে পারে।

সাগরে কোমর পানির নিচে যাওয়া ঠিক নয়। এতে করে বড় স্রোত এলে দুর্ঘটনা হলে আতঙ্কিত না হয়ে শান্ত হয়ে ভাসতে হবে। এসময় হাত দিয়ে লাইফগার্ডদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে হবে। 

বাংলাদেশ সময়: ১২১৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৭, ২০১৯
এসআইএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-27 12:19:07