ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২৫ জুন ২০১৯
bangla news

চরম গরমে, পেট থাকুক আরামে

|
আপডেট: ২০১১-০৭-১৩ ৩:৩০:২৮ এএম

গরমের সাথে আমাদের পেটের সম্পর্কের কথা সবারই জানা। তাই গরমের দিনে পেটের সমস্যায় ভোগাটা অনেকের জন্যই নিত্য ঘটনা। বিশেষ করে বর্ষা কালের এ সময়টায় তা আরো প্রকট হয়ে দাঁড়ায়।

গরমের সাথে আমাদের পেটের সম্পর্কের কথা সবারই জানা। তাই গরমের দিনে পেটের সমস্যায় ভোগাটা অনেকের জন্যই নিত্য ঘটনা। বিশেষ করে বর্ষা কালের এ সময়টায় তা আরো প্রকট হয়ে দাঁড়ায়। যখন বৃষ্টি তখন আবহাওয়া ঠান্ডা আবার একটু পরেই প্রখর রোদ্রের দাবদাহ। এই ধরণের আবহাওয়া পরিপাকতন্ত্রের তাপীয় ভারসাম্যের জন্য একটি বড় বাধা। ফলে পরিপাক জনিত সমস্যায় ভুগে আমাদের ইচ্ছেমতো ওষুধ সেবনের কারণে সমস্যা আরও বেড়ে যায়।  

কিন্তু খাদ্যাভাসে কিছু পরিবর্তন এবং কিছু বিষয় মেনে চলার মাধ্যমে সহজেই পেটের সমস্যা থেকে আমরা মুক্তি পেতে পারি। কেমন করে?

-    অতিরিক্ত গরমে আমাদের পরিপাক তন্ত্রের এনজাইম গুলোর কর্মক্ষমতা কমে যায়, তাই রিচ ফুড [যেমন: বিরিয়ানি, পোলাও ইত্যাদি] যথা সম্ভব এড়িয়ে চলা উচিৎ
-    পানির কোন বিকল্প নেই, স্বভাবিকের চেয়ে দুই তিন গ্লাস পানি বেশি পান করুন
-    চলার পথে অস্বাস্থকর পানীয় পরিহার করতে হবে
-    খাদ্যের তালিকায় সালাদ রাখুন। বিশেষ করে খাবারের সাথে শশা অবশ্যই খাবেন, তাতে পেটের বেশিরভাগ সমস্যা দূর হবে
-    আঁশ জাতীয় খাদ্য [যেমন: শাক-সবজি] বেশি খান। সবজি পরিপাকনালী পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করে
-    বেশি করে ফল খান
-    খাবারের মাঝে অল্প অল্প ঢোকে পানি পান করুন। খাওয়ার শেষে কখনোই অতিরিক্ত পানি পান করবেন না।
-    কখনোই পেট পুরে খাবেন না। পেটে কিছুটা জায়গা থাকতেই খাওয়া শেষ করুন
-    লেবুর শরবত, ইসুপগুলের ভুসি, বেলের শরবত পান করুন, এজাতীয় পানীয়গুলো পরিপাকতন্ত্রের জন্য খুবই উপকারী
-    অন্তত একবেলা খাবার শেষে দই খেতে পারেন
-    গোসল করার সময় কিছুক্ষণ পেটের উপর পানি ঢালুন, এতে পরিপাকতন্ত্রের কার্যকারীতা বৃদ্ধি পায়
-   খাবার শেষে সাথে সথে না ঘুমিয়ে বরং একটু হাঁটুন
-   শোবার সময় ডান দিকে কাত হয়ে শোওয়ার চেষ্টা করুন। এতে এসিডিটি হওয়ার সম্ভাবনা কমে। সকালে ঘুম থেকে উঠে একগ্লাস ঠান্ডা দুধ পান করতে পারেন

এই নিয়মগুলো যে শুধু গরমের দিনের জন্য তা কিন্তু নয়, এগুলো মেনে চললে সারা বছরই আপনি পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়ে সুস্থ সবল থাকতে পারেন।

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-07-13 03:30:28