bangla news

‘মা’

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৫-০৭ ২:৩৭:৪২ এএম

ক’দিন থেকেই ভাবছি, মা দিবস চলে এলো এ বিষয়ে কিছু লিখব। কিন্তু কেমন করে, যতবারই মা কথাটি মনে আসে বুকের ভেতর মোচড় দিয়ে চোখ ঝাপসা হয়ে ওঠে।

ক’দিন থেকেই ভাবছি, মা দিবস চলে এলো এ বিষয়ে কিছু লিখব। কিন্তু কেমন করে, যতবারই মা কথাটি মনে আসে বুকের ভেতর মোচড় দিয়ে চোখ ঝাপসা হয়ে ওঠে।

সবাই বলে সময় নাকি সব ঠিক করে দেয়। কোথায়, গত ১১ বছরে ক্ষতটা একটুওতো শুকায়নি। সময় সত্যি চলে যায়। তবে, মাকে ছাড়া চলাটা খুব কষ্টের। যেদিন জীবনে ভালো কিছু ঘটে সেই খবর শুনে সব থেকে আনন্দিত হওয়ার মানুষটি নেই। আর যখন খুব মন খারাপ থাকে, চলতে চলতে হতাশ হয়ে যাই তখন বুঝি কোন জায়গাটি নেই। আমিতো মায়েরই অংশ তার চেয়ে ভালো কে বুঝবে আমাকে?

আমরা কত স্বার্থপর হয়ে গেছি, ছোট বেলায় স্কুল থেকে ফিরতে সন্ধ্যা হলেও আমার মা না খেয়ে অপেক্ষা করত। আমার মাথা ব্যাথা হলে আমার থেকেও বেশি কাঁদতো আমার মা।

এবার আপনাদের বলি, সবার তো মা আছে। ব্যস্ততা আমাদের জীবনটাকে যান্ত্রিক করে তুলেছে। কতদিন মায়ের দিকে একটু ভালোভাবে তাকিয়ে দেখারও সময় পান না বলুনতো। মা দিবসের জন্যই না হয়, ভালো করে দেখুনতো মা কি দিন দিন বুড়িয়ে যাচ্ছে। একটু সময় নিয়ে পাশে বসুন, একটু ছুঁয়ে থাকুন। ফুল, কার্ড, মগের পাশাপাশি মায়ের জন্য এই উপহারের মূল্যও কম নয়।

মায়ের কথা শোনার সময় কি আপনার হয়? মাঝে মাঝে একটু গল্প করার সময় না হয় বের করে নিন। একদিন হয়তো দেখবেন এটাই চির সুখের স্মৃতি হয়ে থাকবে।

বিশ্বের সব মায়েরা ভালো থেকো। সব সন্তানদের জন্য দোয়া করি, আমাদের মতো মা হারিয়ে আর কেউ কেঁদো না।

বাংলাদেশ সময়: ১২১৯ ঘণ্টা, ০৭ মে, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-05-07 02:37:42