ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

লাইফস্টাইল

শীতে পায়ের অবহেলা নয়

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৪
শীতে পায়ের অবহেলা নয়

আমরা সবাই কম বেশি মুখের যত্ন নেই। তবে ঘাড়, গলা হাত, পুরো শরীর পার হয়ে পা পর্যন্ত অনেকেরই যত্নে নেয়া হয়ে ওঠে না।

যার ফলাফলও ভোগ করতে হয় আমাদের।  

যেমন শীতে পায়ের গোড়ালি ফাঁটা একটি কমন সমস্যা। এছাড়াও এসময় ত্বক রুক্ষ ও ত্বকে মরা কোষ বেশি দেখা যায়। তাই পায়েরও নিয়মিত যত্নের প্রয়োজন। ঘরে বসেই নিতে পারেন পায়ের যত্ন ও পেডিকিওর স্পা।

পেডিকিওর- জানেন বন্ধুরা বেশ কয়েক হাজার বছর আগে সুদূর চীনে পেডিকিওরের যাত্রা শুরু হয়। পায়ের ও নখের রোগ নিমূর্ল ছিল এর প্রধান উদ্দেশ্য। তবে বর্তমানে পেডিকিওর সৌন্দর্যচর্চার অপরিহার্য অংশ। সপ্তাহে অন্তত একদিন পেডিকিওর করুন। পেডিকিওরের ফলে পায়ের রুক্ষতা কমে কোমলতা ফিরে আসবে।

যা যা লাগবে-
•    কটন বল ও নেইলপলিশ রিমুভার
•    নেইল ফাইলার
•    কিউটিকল ও নেইল কাটার
•    শ্যাম্পু
•    পিউমিক স্টোন ও ব্রাশ
•    পেডিকিওর মাস্ক
•    ময়েশ্চারাইজার
•    নেইল পলিশ
•    অলিভ অয়েল
•    লবণ
•    তোয়ালে
•    প্লাস্টিকের বোল

প্রথমে নেইল পলিশ রিমুভার ও কটন বলের সাহায্যে পায়ের নখের নেইল পলিশ তুলুন। এবার  অলিভ অয়েল হালকা গরম করে পায়ে ও নখে ম্যাসাজ করুন। এতে পায়ের মরা কোষ ও নখের চারপাশের সাদা চামড়া নরম হবে।   

প্লাস্টিকের বোলে কুসুম গরম পানিতে শ্যাম্পু ও লবণ মেশান। ১৫ থেকে ২০ মিনিট এই পানিতে পা ভিজিয়ে রাখুন। এবার পায়ের নখ, আঙ্গুল ও গোড়ালী লবণ দিয়ে ম্যাসাজ করুন। এতে মরা চামড়া পরিষ্কার হবে।

গোড়ালীতে ও ফাটা জায়গায় একটু বেশি পরিমাণ লবণ দিয়ে ম্যাসাজ করুন। এতে পায়ের কোমলতা ফিরে আসবে। এবার পানি থেকে পা তুলে নেইলকাটার দিয়ে পায়ের নখ কেটে পছন্দের শেপ দিন। ফাইলার দিয়ে নখ ফাইল করুন। কিউটিকল দিয়ে নখের চারপাশের ময়লা তুলে ফেলুন। এরপর আবার পা পানিতে ৫ থেকে ১০ মিনিট ভিজিয়ে রাখুন।

এরপর ব্রাশ দিয়ে নখ ও পা ঘষতে থাকুন। পিউমিস স্টোন দিয়ে গোড়ালি পরিষ্কার করুন। এভাবে সব ডেথ সেল ও ময়লা উঠে আসবে। এবার ঠাণ্ডা পানিতে পা ধুয়ে ফেলুন।   এবার পায়ে যে কোনো ভেষজ মাস্ক লাগান। সবশেষে পায়ে ময়েশ্চারাইজার লাগান। নখে প্রথমে বেস কোট দিন তারপর পছন্দসই নেইলপলিশ লাগান ও সবশেষে টপ কোট লাগান। প্রতিটি কোট এর মাঝে পাঁচ মিনিট সময় নিন।

পায়ের জন্য মাস্ক-
এ চা চামচ আমন্ড অয়েল, এক চা চামচ মধু, পাকা কলা দিয়ে মাস্ক তৈরি করে পায়ে লাগান। এছাড়াও পায়ের উজ্জলতা বৃদ্ধিতে সারারাত দুধে ওটমিল ভিজিয়ে সকালে দুধসহ ওটমিল ব্লেন্ড করে তাতে সামান্য কাঁচা হলুদ মিশিয়ে পায়ে লাগান। শুকিয়ে আসা পর্যন্ত ম্যাসাজ করুন। এরপর ধুয়ে ফেলুন।

ময়েশ্চারাইজার-
মুখ ও হাতের মতো পায়েরও চাই ময়েশ্চারাইজার। এই শীতে ভেষজ উপায়ে ময়েশ্চারাইজ করুন। পায়ে যে কোনও উদ্ভিজ্জ তেল যেমন অলিভ অয়েল, বাদাম তেল, জোজোবা বা ল্যাভেন্ডার অয়েল ব্যবহার করুন। গোসলের আগে পায়ে দুধে গোলাপজল মিশিয়ে ম্যাসাজ করতে পারেন। এছাড়াও মধু ম্যাসাজ করে ১৫ মিনট পর গোসল করে ফেলুন। এতে ত্বক কোমল হয়ে উঠবে ও জেল্লা ছড়াবে।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa