bangla news

‘মাকড়সা’ অসহায় মানুষের জীবনের গল্প

7 |
আপডেট: ২০১১-০৮-১৪ ১১:৪৩:৫৭ এএম

‘এখনও দেয়ালের কোণে জাল বোনে বৃহৎ আকৃতির কয়েকটি মাকড়সা।’ কথকের কথকতায় ‘মাকড়সা’ নাটকে এভাবেই ফুটে উঠে সমাজের মাকড়সার প্রতিরূপ প্রভাবশালীদের হাতে বঞ্চনা আর নির্যাতনের শিকার অসহায় মানুষের জীবন গাঁথা।

ঢাকা: ‘এখনও দেয়ালের কোণে জাল বোনে বৃহৎ আকৃতির কয়েকটি মাকড়সা।’ কথকের কথকতায় ‘মাকড়সা’ নাটকে এভাবেই ফুটে উঠে সমাজের মাকড়সার প্রতিরূপ প্রভাবশালীদের হাতে বঞ্চনা আর নির্যাতনের শিকার অসহায় মানুষের জীবন গাঁথা।

রোববার শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় এ নাটকের তৃতীয় মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হবে।

জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক ড. লুৎফর রহমান রচিত বর্ণনাত্বক রীতির এই নাট্যপ্রযোজনার নির্দেশনা দিয়েছেন সংগঠনের আহ্বায়ক জুলফিকার হুসাইন সোহাগ।

‘মাকড়সা’ নাটকটি মহানন্দপুর নামক একটি গ্রামের প্রেক্ষাপটে রচিত হলেও এতে উঠে এসেছে সাধারণ মানুষদের অসহায়ত্বের কথা। গ্রামের বৃদ্ধ মাতব্বর ভগবান দাস। মাকড়সার মতো তার বানানো জালে বন্দি তার স্ত্রী বিন্দেদাসীসহ গ্রামের চাষারা। একরাতের কীত্তনের আসরে যুবকের প্রেমে পড়ে বিন্দেদাসী। গ্রামের চাষারা একসময় ভগবানের জাল থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য মহন্ত দাসের কাছে ধরনা দেয়। কীত্তনিয়া যুবকের হাত ধরে বিন্দেদাসীও হাজির হয় মহন্ত দাসের ঘরে। কিন্তু মহন্ত দাস বুনে আরেক নতুন জাল। সেই জালে ধরা দেয় এইসব নিরীহ সহজ সরল মানুষগুলো। মহন্ত দাসের ধুতির সাথে বাঁধা পড়ে বিন্দেদাসীর আঁচল। মহানন্দপুরের খেটে খাওয়া নমচাষাদের মতো সাধারণ মানুষরাও সবসময় এক জাল থেকে মুক্ত হয়ে ধরা দেয় আরেক জালে।

নাটকটিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন স্বর্ণ পারুল, জুলফিকার হুসাইন সোহাগ, মাহামুদুল হাসান মিথেন, জোবায়ের আসাদ, আব্দুল মাজেদ, জুবায়ের মোস্তফা, সোহাগ আশরাফী, বিউটি আকবর, স্নিগ্ধা সাথী, জিপু বিশ্বাস, মাহবুব লেমন, সাগর আচার্য, ম হ সাগর, খাইরুল ওয়াসিম, পার্থ রায় অন্তর, শাহনাজ শানু, আহসান শ্রাবণ, তিতাশ কবীর, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

নাটকের মঞ্চ পরিকল্পনায় ফজলে রাব্বী সুকর্ণ, আলোক পরিকল্পনায় নাজিব মাহফুজ, কোরিওগ্রাফী সাগর আচার্য, সংগীত নির্দেশনায় জুলফিকার হুসাইন সোহাগ এবং সংগীত সহকারী খাইরুল ওয়াসিম, এস কে সজল ও তৌহিদা ইসলাম চুমকি।

বাংলাদেশ সময়: ২১২১ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-08-14 11:43:57