bangla news

হয়ে গেল মেহেদি উৎসব

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১১-০৬ ১০:৩৬:০৫ এএম

টিএসসির সভাকক্ষ। ঢুকতেই দেখা গেল জনা পঁচিশেক মেয়ে হাত বাড়িয়ে বসে আছে মেঝের ওপর। আর সঙ্গী মেয়েটি সেই হাতে পরম যত্নে পড়িয়ে দিচ্ছে মেহেদি। এটাই প্রতিযোগিতা আর এই প্রতিযোগিতা উৎসবেরই অংশ। উৎসবের নাম ‘মেহেদি উৎসব’।

টিএসসির সভাকক্ষ। ঢুকতেই দেখা গেল জনা পঁচিশেক মেয়ে হাত বাড়িয়ে বসে আছে মেঝের ওপর। আর সঙ্গী মেয়েটি সেই হাতে পরম যত্নে পড়িয়ে দিচ্ছে মেহেদি। এটাই প্রতিযোগিতা আর এই প্রতিযোগিতা উৎসবেরই অংশ। উৎসবের নাম ‘মেহেদি উৎসব’।

গত দীর্ঘ ১১ বছর ধরে প্রতি ঈদেই ‘ঢাকাবাসী’ এবং ‘বিশ্বকলা কেন্দ্র’ যৌথভাবে আয়েজন করে আসছে এই মেহেদী উৎসবের। আসছে ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৬ নভেম্বর শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির সভাকক্ষে আয়োজন করেছিল মেহেদী উৎসব এবং মেহেদী দেয়ার প্রতিযোগীতা।

এবছর উৎসবটা শুরু হয় পুরাতন ঢাকার খ্যাতমান বীণা বাদক আব্দুল কাদেরের বীণা বাজানোর মাধ্যমে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত থাকা আইন ও সংসদবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলামকে মেহেদী পাড়ানো হয়।

এ সময় তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশীয় ঐতিহ্য দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে। এ সময় ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য এ দুই সংগঠন দীর্ঘদিন ধরে যে প্রচেষ্ঠা চালিয়ে আসছে সেজন্য তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।’

তিনি আরো বলেন, আমাদের সংস্কৃতিতে মেহেদী দেওয়াটা যেনো একটি উৎসবকে ঘিরে আরো একটি নতুন উৎসবের আয়োজন।

আয়োজকদের পক্ষ হতে ‘ঢাকাবাসী’র সভাপতি শুকুর সালেক জানান, ঈদে আসলে ধুম পড়ে জামা-কাপড় কেনার। মেহেদী দেয়াও তার থেকে কম গুরুত্বের নয়। তাই চাঁদ-রাতের আগ পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন স্থানে তারা এ উৎসবের আয়োজন করবেন।

ঈদের দ্বিতীয় দিন সংগঠনটি একটি আনন্দ-র‌্যালির আয়োজন করবে বলে তিনি বাংলানিউজকে জানান।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ২০১০ নভেম্বর ৬, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-11-06 10:36:05