ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২৩ শাবান ১৪৪৫

লাইফস্টাইল

আইসিসিবিতে দুই দিনব্যাপী হেয়ার অ্যান্ড বিউটি ফেস্ট অনুষ্ঠিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
আইসিসিবিতে দুই দিনব্যাপী হেয়ার অ্যান্ড বিউটি ফেস্ট অনুষ্ঠিত হেয়ার অ্যান্ড বিউটি ফেস্টের একাংশ চিত্র। ছবি: রাজীন চৌধুরী

ঢাকা: দেশের সৌন্দর্য সচেতন মানুষদের জন্য রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) দুই দিনব্যাপী ‘হেয়ার অ্যান্ড বিউটি ফেস্ট ২০২৪’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই ফেস্টে দেশের বিখ্যাত বিউটি পার্লার, প্রসাধনী প্রতিষ্ঠান, হেয়ার স্টাইলিস্ট, মেকআপ আর্টিস্ট, ত্বক বিশেষজ্ঞ, এবং ফ্যাশন ডিজাইনাররা তাদের সর্বশেষ সার্ভিস ও প্রোডাক্ট প্রদর্শন করছেন।

ফেস্টে সৌন্দর্য সংক্রান্ত বিভিন্ন কর্মশালা, ওয়ার্কশপ, লাইভ ডেমো, ফ্যাশন শো, এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় আইসিসিবির হল-৩ এ বিউটি সার্ভিস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (বিএসওএবি) আয়োজিত এ ফেস্টের দ্বিতীয় দিনে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী ডা. দীপুমনির সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে ইভেন্টটি সমাপ্ত হয়। এ সময় বিউটি ইন্ডাস্ট্রির বিভিন্ন সদস্যরা, তারকারা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।  

সমাপনী বক্তব্যে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী দীপুমনি বলেন, এখন গ্রামপর্যায়েও বিউটি সার্ভিস দেওয়ার মাধ্যমে আমাদের নারীরা উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেদের গড়ে তুলছে। বিউটি সার্ভিস এখন আমাদের দেশে ব্যাপকভাবে প্রসারিত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় বলেন, দেশের অর্ধের জনগোষ্ঠী নারী আর তাদের ছাড়া দেশকে কখনো এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভাব হবে না। তাই নারীদের জন্য আমরা সবাই যদি আমাদের হাতটা বাড়িয়ে দেই তাহলে এদেশের নারীরা স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে সহায়তা করবেন।

দীপুমনি বলেন, হেয়ার অ্যান্ড বিউটি ফেস্ট সৃজনশীলতা এবং সামাজিক দায়বদ্ধতার প্রচারে শিল্পের প্রতিশ্রুতির উদাহরণস্বরূপ। এটি এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যা সৌন্দর্যকে উদযাপনের পাশাপাশি ক্ষমতায়ন, ভোক্তা অধিকার এবং নৈতিক মূল্যবোধের ওপর জোর দিচ্ছে।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় নারীদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে জানিয়ে ডা. দীপুমনি বলেন, দেশের প্রান্তিক পর্যায়ের নারীদের সঠিক প্রশিক্ষণ দেওয়ার মাধ্যমে সফল উদ্যোক্তা তৈরিতে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কাজ করছে। বিউটি ইন্ডাস্ট্রিতে বর্তমানে প্রায় ১০ লাখ সফল উদ্যোক্তা কাজ করছে। পাশাপাশি নারীদের জীবন মান উন্নয়নের জন্য যাবতীয় যা প্রয়োজন হয় সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সব উদ্যোগ নেবে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ এইচ এম সফিকুজ্জামান বলেন, এই অ্যাসোসিয়েশনের কার্যক্রম পুরো বাংলাদেশে ব্যাপক আকার ধারণ করেছে। সারা দেশের বহু ভোক্তা বিউটি সার্ভিস নিচ্ছেন। পাশাপাশি বাজারে বহু বিউটি প্রোডাক্ট নকল হচ্ছে। তাই এই অ্যাসোসিয়েশন যদি এই বিষয়ে ভোক্তাদের পাশাপাশি উদ্যোক্তাদের জন্য যদি সঠিক প্রোডাক্ট চেনা যায় কীভাবে এ ধরনের কর্মসূচি নেয় তাহলে এই সেক্টরের জন্য ভালো হবে। একইসঙ্গে এই সেক্টরের বহু চ্যালেঞ্জ আছে, সেগুলো মোকাবিলা করে অ্যাসোসিয়েশন সামনে এগিয়ে যাবে।

বিএসওএবির প্রেসিডেন্ট কানিজ আলমাস খান বলেন, হেয়ার অ্যান্ড বিউটি ফেস্ট ২০২৪ দেশের বিউটি ইন্ডাস্ট্রিকে ত্বরান্বিত করতে, পরিবর্তন নিয়ে আসতে, সদস্যদের ক্ষমতায়ন ও নতুনদের অনুপ্রাণিত করার উদ্দেশ্যে আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিবছর আমরা এই ধরনের এইটি ফেস্টের আয়োজন করব। এই অনন্য যাত্রায় সবাইকে আমাদের সঙ্গে যোগদানের জন্য আমি আহ্বান জানাচ্ছি। আসুন আমরা সবাই মিলে এই শিল্পকে নতুনভাবে সংজ্ঞায়িত করি।

অনুষ্ঠানে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এই ফেস্ট দেশের সৌন্দর্য শিল্পকে আরও সমৃদ্ধ করতে সাহায্য করবে। বিএসওএবি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের প্রতিনিধিত্ব করার মাধ্যমে লাখ লাখ কর্মসংস্থান নিশ্চিত করছে। ২০২০ সালে বাংলাদেশ সরকার বিউটি ইন্ডাস্ট্রিকে স্বীকৃতি দেয় এবং শিল্প হিসেবে ঘোষণা করে। একটি সমৃদ্ধ ও উদ্ভাবনী বিউটি ইন্ডাস্ট্রি গঠনের লক্ষ্যে বিএসওএবিকে বিউটি প্রোডাক্ট উৎপাদনে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) উৎসাহিত করেছে। পাশাপাশি বিউটি সেক্টরের উদ্যোক্তাদের ভ্যাট ও ট্যাক্স সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষাদানের মাধ্যমে এনবিআর ব্যাপক ভূমিকা পালন করেছে।

এই আয়োজনে বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে ইকোলজিক্যাল ব্যালেন্সভিত্তিক ফ্যাশন শো, দেশি-বিদেশি হেয়ার অ্যান্ড বিউটি এক্সপার্টদের লাইভ ডেমনস্ট্রেশন, দেশব্যাপী মেকআপ আর্টিস্টদের অংশগ্রহণে গ্র্যান্ড ব্রাইডাল ফ্যাশন কিউ, সঙ্গীতানুষ্ঠান, বিউটি ইন্ডাস্ট্রিতে অসামান্য ভূমিকা পালনকারীদের স্বীকৃতিস্বরূপ পুরস্কার দেওয়া হয়।  

এই ফেস্টের আয়োজন করে বিএসওএবি। এই আয়োজনের প্ল্যাটিনাম স্পন্সর ছিল সামিট, এবং গোল্ড স্পন্সর ছিল বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেড ও রিভাইভ।  

বাংলাদেশ সময়: ২০০৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪
ইএসএস/এএটি 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।