ঢাকা, শনিবার, ৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ আগস্ট ২০২২, ২১ মহররম ১৪৪৪

আইন ও আদালত

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট   | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৬ ঘণ্টা, জুলাই ৫, ২০২২
স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে স্বামী সুজন মিয়াকে (৩৫) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দুপুরের দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এ রায় দেন।

দণ্ডিত সুজন টাঙ্গাইল পৌর শহরের আদি টাঙ্গাইল এলাকার মৃত আ. সালামের ছেলে।

টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের সহকারী সরকারি কৌঁসুলি (এপিপি) মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস বাংলানিউজকে জানান, প্রায় ১৪ বছর আগে সুজন মিয়ার সঙ্গে আদি টাঙ্গাইল দাসপাড়া (মাঝিপাড়া) শিউলী আক্তারের (২৭) বিয়ে হয়। বিয়ের পর দেড় লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে তার স্বামী বিভিন্ন সময় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন। ২০১৪ সালের ১৭ জুন বেলা ১১টার দিকে শিউলীকে তার স্বামী ঘরের দরজা বন্ধ করে যৌতুকের টাকার জন্য মারধর করেন। পরে তার স্ত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন পাষণ্ড স্বামী। সে সময় শিউলীর ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পরের দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিউলীর মৃত্যু হয়। পরে নিহত শিউলীর ভাই মো. শিবলু মিয়া বাদী হয়ে ২০১৪ সালের ১৮ জুন টাঙ্গাইল সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার সাক্ষ্য ও শুনানি শেষে এ রায় দেন বিচারক। দণ্ডিত সুজনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৫ ঘণ্টা, জুলাই ০৫, ২০২২
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa