ঢাকা, বুধবার, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ আগস্ট ২০২২, ১১ মহররম ১৪৪৪

আইন ও আদালত

কুষ্টিয়ায় গৃহকর্তাকে হত্যার দায়ে ভাড়াটিয়া দম্পতির যাবজ্জীবন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৫ ঘণ্টা, জুন ১৪, ২০২২
কুষ্টিয়ায় গৃহকর্তাকে হত্যার দায়ে ভাড়াটিয়া দম্পতির যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়া মডেল থানায় দায়ের করা গৃহকর্তা জালাল হত্যা মামলায় ওই বাড়ির ভাড়াটিয়া দম্পতিকে যাবজ্জীবন করাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে তাদের ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ জুন) দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ অতিরিক্ত আদালত-১ এর বিচারক তাজুল ইসলাম জনাকীর্ণ আদালতে আসাদিদ্বয়ের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- মিরপুর উপজেলার নওপাড়া গ্রামের মৃত মুন্তাজ মণ্ডলের ছেলে সাহাবুল ইসলাম (২৮) এবং সাহাবুলের স্ত্রী একই এলাকার মারুফ হোসেনের মেয়ে মারিয়া আহমেদ (২২)।  

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালের ২৫ জানুয়ারি দুপুরে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বারখাদা গ্রামের বাসিন্দা জালাল উদ্দিন তার নিজ বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। ওই সময় তার বাড়ির ভাড়াটিয়া সাহাবুল-মারিয়া বাড়িওয়ালার ঘরে কাপড় চুরি করতে যান। এসময় তাদের চুরি করতে দেখে ফেলায় মারিয়া ও সাহাবুল বটি ও ব্লেড দিয়ে গৃহকর্তা জালাল উদ্দিনকে গলা কেটে হত্যা করেন। এরপর মরদেহ ঘরের মেঝেতে লেপ দিয়ে মুড়িয়ে ফেলে রেখে যান। এ ঘটনায় একই দিন নিহতের স্ত্রী রিনা খাতুন বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

কুষ্টিয়া মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক আননুর জায়েদ মামলাটি মাত্র সাতদিনের মধ্যে তদন্ত শেষে ২০২০ সালের ৩১ জানুয়ারি আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, মামলার শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় মঙ্গলবার এ রায় দেন আদালত।
 
বাংলাদেশ সময়: ২২০৩ ঘণ্টা, জুন ১৪, ২০২২
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa