ঢাকা, রবিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

আইন ও আদালত

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী খুন: ২ জনের স্বীকারোক্তি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৮, ২০২১
বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী খুন: ২ জনের স্বীকারোক্তি ...

ঢাকা: রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ছিনতাকারীর ছুরিকাঘাতে বেসরকারি সোনারগাঁও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কেশব রায় পাপনের মৃত্যুর ঘটনায় হওয়া মামলায় দুইজন আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে।

শুক্রবার (০৮ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম মাহমুদা আক্তার এই আদেশ দেন।

 

একই আদালত ঘটনার মূল হোতা তুহিনের দুই দিনের রিমান্ড এবং অপর এক আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এ দিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তেজগাঁও থানার এসআই (নিরস্ত্র) মো. গোলাম সারোয়ার চার আসামিকে আদালতে হাজির করেন। এ সময় জুয়েল, জাহাঙ্গীর ওরফে মুটো জাহাঙ্গীর ও নুরুজ্জামান ওরফে মামুনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড ও তুহিনের পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে জাহাঙ্গীর ও নুরুজ্জামান স্বীকারোক্তিমূলক জবনাবন্দি দেন। কিন্তু জুয়েল স্বীকারোক্তি দিতে অস্বীকৃতি জানান। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। অপরদিকে তুহিনের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

গত ৫ অক্টোবর রাজধানীর কারওয়ান বাজার তেজতুরী বাজার হোটেল মেরিনের সামনে রাত ৯টার দিকে কয়েকজন অস্ত্রধারী ছিনতাইকারীরা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী কেশব রায় পাপনকে (২৪) ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। আশপাশের পথচারী পাপনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় ভিকটিমের মামা সন্তোষ কুমার মন্ডল তেজগাঁও থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার পর চার আসামিকে গ্রেফতারর করে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৮, ২০২১
কেআই/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa