ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আইন ও আদালত

তালাক দেওয়া স্ত্রীকে খুন: সাজা কমলো আসামির

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০১ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১
তালাক দেওয়া স্ত্রীকে খুন: সাজা কমলো আসামির

ঢাকা: গাজীপুরের শ্রীপুরে ২০০২ সালে সাবেক স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে করা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত স্বামীর সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

বুধবার (১৪ জুলাই) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ভার্চ্যুয়াল আপিল বিভাগের ছয় বিচারপতির বেঞ্চ এ রায় দেন।

একইসঙ্গে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ১৫ দিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আসামি কাজিম উদ্দিনকে যত দ্রুত সম্ভব কনডেম সেল থেকে বের করে সাধারণ সেলে নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আদালতে আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোহাইমেন বকস্ (এস এম বকস্ কল্লোল) রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন, অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ মোরশেদ ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কেওয়া পূর্বখণ্ড গ্রামের মো. কাজিম উদ্দিন তার স্ত্রী খোদেজা বেগমকে ২০০২ সালের ৩ আগস্ট আদালতের মাধ্যমে তালাক দেন।

এর এক সপ্তাহ পর ১০ আগস্ট আগস্ট খোদেজা বেগমকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেন কাজিম উদ্দিন। এই হত্যাকাণ্ডের সময় স্থানীয় জনতা তাকে গণপিটুনি দেয়। জনতা তাকে মৃত ভেবে ফেলে যায়। কিন্তু তিনি বেঁচে যান। এরপর পালিয়ে ভারতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে যশোরের বেনাপোল সীমান্তে যান। তবে ভারতে না গিয়ে গাজীপুরে ফিরে এসে ২৪ আগস্ট থানায় আত্মসমর্পণ করেন।

এ ঘটনায় খোদেজার ভাই বাদী হয়ে মামলা করেন। এ মামলায় বিচার শেষে গাজীপুরের আদালত ২০০৮ সালের ১২ আগস্ট কাজিম উদ্দিনকে মৃত্যুদণ্ড দেন।

নিয়ম অনুসারে মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য নথি হাইকোর্টে পৌঁছে। পাশাপাশি আপিল করেন আসামি। শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট ২০১৩ সালের ২১ নভেম্বর মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখেন। পরে জেল আপিল করেন আসামি।

শুনানি শেষে বুধবার তার দণ্ড কমিয়ে যাবজ্জীবন সাজা দেন আপিল বিভাগ।

বাংলাদেশ সময়: ২১০০ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২১
ইএস/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa