ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৮, ২১ অক্টোবর ২০২১, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আইন ও আদালত

গৃহকর্মীকে নির্যাতনে অভিযুক্ত দম্পতি কারাগারে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৯ ঘণ্টা, জুলাই ৪, ২০২১
গৃহকর্মীকে নির্যাতনে অভিযুক্ত দম্পতি কারাগারে

ঢাকা: রাজধানীর তোপখানা রোডের একটি বাসা থেকে সুইটি নামে ১২ বছর বয়সী এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে আটক তানভির আহসান এবং অ্যাডভোকেট নাহিদ দম্পতিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (০৪ জুলাই) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শাহিনুর রহমান জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এদিন দুপুরে শাহবাগ থানার উপপরিদর্শক জাহাঙ্গীর হোসেন আসামিদের আদালতে হাজির করে ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

আবেদনে বলা হয়, জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে অভিযোগ পেয়ে তাদের নাহিদের বাবার বাসা থেকে আটক করা হয়। ভুক্তভোগীর অভিভাবকের অভিযোগ পাওয়ার পর পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ অবস্থায় আসামিদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন জানাচ্ছি।  

আসামিপক্ষে তাদের আইনজীবী জামিন আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

শাহবাগ থানার নন জিআর শাখার নিবন্ধন কর্মকর্তা ফুয়াদ উদ্দিন এ তথ্য জানান।

জানা যায়, সুইটির বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন থানার নবাবপুর গ্রামে। অভাবের তাড়নায় দরিদ্র বাবা-মা তাকে রাজধানীর তোপখানা রোডে একটি বাসায় গৃহকর্মীর কাজে দিতে বাধ্য হয়েছেন। সেখানে সে ৯ মাস ধরে কাজ করছে। প্রায় প্রতিদিনই তাকে নানা অজুহাতে গৃহকর্তা ও গৃহকর্ত্রী স্বামী-স্ত্রী দুজন মিলে মারধর করেন। সুইটির চোখের নিচে আঘাতের চিহ্ন, হাতে গুরুতর জখম রয়েছে। তার পশ্চাৎদেশের উভয়পাশে মশা মারার ইলেকট্রিক ব্যাট দিয়ে আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়।
 
মেয়েটির শরীরে নির্যাতনের আঘাতের চিহ্নসহ কিছু ছবি শনিবার (০৩ জুলাই) রাতে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে দ্রুত সহযোগিতা ও আইনি ব্যবস্থার আকুতি জানান এক প্রতিবেশী। বিষয়টি পুলিশের নজরে আসলে তাদের শনিবার রাতে আটক করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৮ ঘণ্টা, জুলাই ০৪, ২০২১
কেআই/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa