ঢাকা, সোমবার, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৫ শাবান ১৪৪৫

আইন ও আদালত

দুই মামলায় ক্যাসিনো খালেদের বিচার শুরু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৩ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২১
দুই মামলায় ক্যাসিনো খালেদের বিচার শুরু

ঢাকা: গুলশান থানার বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন ও মতিঝিল থানার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া ওরফে ক্যাসিনো খালেদের বিচার শুরু হয়েছে।  

রোববার (২১ মার্চ) ঢাকার অতিরিক্ত তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ রবিউল আলম অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর এ আদেশ দেন।

একইসঙ্গে এ মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ১ জুন দিন ধার্য করেন আদালত।

এদিন আসামিপক্ষে অব্যাহতির (ডিসচার্জ) আবেদন করেন তার আইনজীবী। রাষ্ট্রপক্ষ অব্যাহতির আবেদনের বিরোধিতা করে অভিযোগ গঠনের আর্জি জানান। শুনানি শেষে অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে বিচারক চার্জগঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর আদেশ দেন।  

সংশ্লিষ্ট আদালতের সহকারী প্রসিকিউটর সালাহউদ্দিন হাওলাদার এ তথ্য জানান।

গত বছরের ১৮ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর গুলশান থানায় খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইনে সিআইডি মামলাটি করে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ২০১৯ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার গুলশানের বাসায় অভিযান চালায়। ওই বাসা থেকে ছয়টি দেশের মুদ্রা জব্দ করা হয়। এর মধ্যে সিঙ্গাপুরের ১০ হাজার ৫০ ডলার, থাইল্যান্ডের ১০ হাজার ৪৯০ বাথ, ভারতীয় সাড়ে তিন হাজার রুপি, সৌদি আরবের দুই হাজার ৩২১ রিয়াল, মালয়েশিয়ান ৬৫৬ রিঙ্গিত ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৭৫ দিরহাম রয়েছে।

অবৈধ জুয়া ও ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে ২০১৯ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকা দক্ষিণ মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গুলশানে তার বাড়ি থেকে একটি শটগান, দু’টি পিস্তল, শটগানের ৫৭টি গুলি ও ৫৮৫টি ইয়াবা জব্দ করা হয়। পরে তার নামে গুলশান থানায় অস্ত্র, মাদক ও মানিলন্ডারিং আইনে পৃথক তিনটি মামলা এবং মতিঝিল থানায় মাদক আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়। যুবলীগ থেকেও বহিষ্কার করা হয় খালেদকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০২ ঘণ্টা, মার্চ ২১, ২০২১
কেআই/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।