ঢাকা, রবিবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

আইন ও আদালত

লিবিয়ায় মানবপাচার: আপিলে আটকে গেলো ৪ আসামির জামিন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২১
লিবিয়ায় মানবপাচার: আপিলে আটকে গেলো ৪ আসামির জামিন

ঢাকা: লিবিয়ার মানবপাচার ও পাচারের শিকার ২৬ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় ঢাকায় করা একটি মামলায় দুই আসামির জামিনের রায় বাতিল এবং অপর দুই আসামির জামিন স্থগিত করেছেন আপিল বিভাগ।

রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আসামিদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মুনসুরুল হক চৌধুরী ও ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

আদালতের আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ।

গত ২৮ মে লিবিয়ার মিজদাহ শহরে ইউরোপে অভিবাসনপ্রত্যাশী ২৬ বাংলাদেশি মানবপাচারকারীদের হাতে নিহত হন। একই ঘটনায় আহত হন আরও ১১ বাংলাদেশি। ওই ঘটনা এরই মধ্যে দেশ-বিদেশে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।  

এই ঘটনায় ২ জুন  রাতে রাজধানীর পল্টন থানায় মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে এবং হত্যার অভিযোগে মামলাটি করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি। এই মামলায় এজাহারভুক্ত আসামি ছিলেন ফ্লাইওভার ট্যুরস অ্যান্ড ট্র্যাভেলস লিমিটেডের মালিক দুই ভাই শেখ মো. মাহবুবুর রহমান ও শেখ সাহিদুর রহমান।

পরে শেখ মাহবুব ও শেখ সাহিদুর হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আবেদন করেন। হাইকোর্ট তাদের আবেদনে রুল জারি করেন। সেই রুলের শুনানি নিয়ে তাদের জামিন মঞ্জুর করেন হাইকোর্ট।

এদিকে অজ্ঞাত আসামি হিসেবে আটক হন কাউসার মুন্সী ও মাহবুব মুন্সীর নাম। কাউসার মুন্সী ও মাহবুব মুন্সীকে জামিন দিয়ে রুল জারি করেন হাইকোর্ট।

পরে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল বিভাগে আবেদন করে। আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত তাদের জামিনাদেশ স্থগিত করেন। এর ধারাবাহিকতায় আবেদনগুলো প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চে আসে। রোববার শুনানি শেষে আপিল বিভাগ শেখ মাহবুব ও শেখ সাহিদুরকে জামিন দিয়ে হাইকোর্টের দেওয়া রায় বাতিল করেছেন। আর কাউসার মুন্সী ও মাহবুব মুন্সীর জামিনাদেশ স্থগিত করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০২১
ইএস/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।