ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

আইন ও আদালত

নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর, হাজী সেলিমের গাড়িচালক রিমান্ডে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২০
নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর, হাজী সেলিমের গাড়িচালক রিমান্ডে

ঢাকা: রাজধানীর কলাবাগানে নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় গ্রেফতার ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের গাড়িচালক মিজানুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান মো. নোমান রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

রোববার (২৫ অ্ক্টোবর) রাতে মারধরের পরপরই গাড়িচালক মিজানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সোমবার তাকে আদালতে হাজির করে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ধানমন্ডি থানার পরিদর্শক আশফাক রাজীব হায়দার। আসামিপক্ষে আবু হাসিব টিপু রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিনের আবেদন করেন।

শুনানি শেষে বিচারক জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে মিজানের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

জানা যায়, রোববার রাতে নৌবাহিনীর লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফ আহমদ খান মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন। এ সময় সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর  ইরফান সেলিমের গাড়িটি তাকে ধাক্কা দেয়। এরপর তিনি সড়কের পাশে মোটরসাইকেলটি থামিয়ে গাড়ির সামনে দাঁড়ান এবং নিজের পরিচয় দেন।

তখন গাড়ি থেকে নেমে তারা ওই কর্মকর্তাকে কিল-ঘুষি মারেন এবং মেরে ফেলার হুমকি দেন। এ সময় তার একটি দাঁত ভেঙে যায়। ওই কর্মকর্তার স্ত্রীকেও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন তারা। এর মধ্যে রাতেই ঘটনার একটি ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়।

এ ঘটনায় সোমবার সকালে ইরফান সেলিম, তার বডিগার্ড মো. জাহিদ, এ বি সিদ্দিক দিপু এবং গাড়িচালক মিজানুর রহমানসহ অজ্ঞাতনামা ২ থেকে ৩ জনকে আসামি করে বাদী হয়ে ধানমন্ডি থানায় মামলা করেন ওয়াসিফ আহমদ খান। সেই মামলার প্রথম আসামি হিসেবে মিজানকে রিমান্ডে নেওয়া হলো।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২০
কেআই/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa