ঢাকা, সোমবার, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

আইন ও আদালত

মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সারাফুজ্জামানকে তলব

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২০, ২০২০
মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সারাফুজ্জামানকে তলব ...

ঢাকা: ধর্ষণ মামলার দুই আসামির জবানবন্দি একই সময়ে রেকর্ড করার ঘটনায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারাফুজ্জামান আনছারীকে তলব করেছেন হাইকোর্ট।

ওই মামলার এক আসামির জামিন শুনানিকালে মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আগামী ১১ নভেম্বর মামলার সিডি (কেস ডকেট) নিয়ে তাকে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

আসামি পক্ষে ছিলেন আইনজীবী আব্দুল জলিল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন।

আইনজীবী আব্দুল জলিল জানান, ২০১৮ সালের ১৩ অক্টোবর শাহাদাত হোসেন, নবীরুল ও কাউছারের বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ভাটারা থানায় এক নারী মামলা করেন।

এ মামলার তদন্তকালে ২০১৯ সালের ২৭ মার্চ ঢাকার বাবুবাজার এলাকা থেকে শাহাদাতকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার তথ্যের ভিত্তিতে দুই আসামি মো. নবীরুল ইসলাম ও মো. কাউছারও গ্রেপ্তার হন।

গ্রেপ্তারের পরদিন দুপুর ১২টায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারাফুজ্জামান আনছারীর খাস কামরায় শাহাদাতের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। একই দিন একই সময়ে মো. কাউছারের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও রেকর্ড করেন এই ম্যাজিস্ট্রেট।

আইনজীবী আব্দুল জলিল আরও জানান,  বাদী ধর্ষণচেষ্টার মামলা করলেও তদন্ত ও আসামিদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির প্রেক্ষিতে আসামিদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে ১৮ ফেব্রুয়ারি অভিযোগ গঠন করা হয়েছে।

পরে ১৮ আগস্ট মো. কাউছারকে হাইকোর্ট এক বছরের জামিন দেন। পরবর্তীতে শাহাদাতও হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আপিল করেন।

এই আপিল শুনানিতে জবানবন্দির বিষয়টি উঠে এলে বিষয়টি খতিয়ে দেখে আদালত সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেটকে তলব করেন বলে জানান আব্দুল জলিল।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২০, ২০২০
ইএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa