ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৬ আগস্ট ২০২০, ১৫ জিলহজ ১৪৪১

আইন ও আদালত

গর্ভপাতে মৃত্যু: ‘ভুয়া চিকিৎসক’ দম্পতি রিমান্ডে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৭-১৪ ১০:০৫:৩০ পিএম
গর্ভপাতে মৃত্যু: ‘ভুয়া চিকিৎসক’ দম্পতি রিমান্ডে

ঢাকা: রাজধানীর উত্তরখানের কোনাবাড়ি এলাকায় গর্ভপাতের সময় এক অন্তঃসত্ত্বা নারীর মৃত্যুর ঘটনায় করা হত্যা মামলায় গ্রেফতার ‘ভুয়া চিকিৎসক’ দম্পতিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট দেবদাস চন্দ্র অধিকারী এ আ‌দেশ দেন।

রিমান্ডে যাওয়া দম্পতি হলেন-গোলাম রাব্বানী ও তার স্ত্রী হাসিনা।

এরআগে সোমবার (১৩ জুলাই) সকালে রাজধানীর পল্লবীর একটি বাসা থেকে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর মঙ্গলবার তাদের আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদন করেন উত্তরখান থানার তদন্ত কর্মকর্তা।

এ সময় গোলাম রাব্বানীর পক্ষে জামিন আবেদন করেন তার আইনজীবী। তবে হাসিনার পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না। শুনানি শেষে বিচারক তাদের দুইদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উত্তরখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হেলাল উদ্দিন জানান, এ দম্পতির চিকিৎসকের কোনো সনদ নেই। এর আগেও অবৈধ গর্ভপাতের অভিযোগে তাদের নামে মামলা হয়েছে এবং সেই মামলায় তারা জামিনে ছিলেন। এবার তারা নিজেদের বাড়িতে ‘ঘরোয়া পদ্ধতিতে’ গর্ভপাত ঘটাতে গেলে অতিরিক্ত রক্তরক্ষণে মালা রানী নামে এক নারীর মৃত্যু হয়। তাদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় হত্যাসহ আলামত গায়েবের অভিযোগ আনা হয়েছে।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, গত ৩ জুলাই উত্তরখানের আমাইয়া এলাকা থেকে মালা রানী নামে এক নারী নিখোঁজ হন। ওইদিনই তার স্বামী হরি গোপাল দাসকে একটি মোবাইল নম্বর থেকে ফোনে জানানো হয় তার স্ত্রী যেখানে আছেন সুস্থ আছেন এবং রাতে সেখানেই থাকবেন। একদিন অপেক্ষার পর হরি গোপাল ফের ওই নম্বরে ফোন করলে কেউ তা রিসিভ করেননি।

তাই গত ৫ জুলাই হরি গোপাল উত্তরখান থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। জিডির সূত্র ধরে পুলিশ জানতে পারে ওই মোবাইল নম্বরটি গোলাম রাব্বানী নামে এক ব্যক্তির। তার বাসা উত্তরখানের তালতলা বালুর মাঠ এলাকায়। কিন্তু সেই বাসায় তাকে গিয়ে পাওয়া যায়নি। পরে সোমবার সকালে পল্লবীর একটি বাসা থেকে তাদের দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করেন, ৩ জুলাই মালা রানীকে ওষুধ খাইয়ে তার গর্ভপাত করানোর চেষ্টা করেন। এতে তার অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয় এবং ৪ জুলাই বিকেলে মারা যান। এরপর মালা রানীকে একটি বস্তায় ভরে ডোবায় ফেলে দেন গোলাম রাব্বানী ও তার স্ত্রী। সোমবার দুপুরে ওই ডোবা থেকে তার বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২২০০ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০২০
কেআই/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa