ঢাকা, সোমবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

আইন ও আদালত

২ ভার্চ্যুয়াল কোর্ট স্থাপন: অনলাইনে জামিন হবে রাজশাহীতেও

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩০৬ ঘণ্টা, মে ১২, ২০২০
২ ভার্চ্যুয়াল কোর্ট স্থাপন: অনলাইনে জামিন হবে রাজশাহীতেও আদালত

রাজশাহী: করোনা সংকটের কারণে অধস্তন আদালতে ভার্চ্যুয়ালি কার্যক্রম পরিচালনার পদ্ধতি সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করেছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন। এরপর প্রথমবারের মত বিভাগীয় শহর রাজশাহীতের আসামিদের জামিন আবেদন গ্রহণ ও শুনানির জন্য দুইটি ভার্চ্যুয়াল কোর্ট তৈরি করা হয়েছে। ফলে এখন থেকে রাজশাহীর আইনজীবীরাও অনলাইনে জামিনের আবেদন করতে পারবেন। অংশ নেবেন শুনানিতে।

চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, রাজশাহী ফেসবুক পেইজে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

রাজশাহীর কারাগারে বন্দি আসামিদের জামিন-শুনানির জন্য সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা মোতাবেক রাজশাহীর চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ দু’টি ভার্চ্যুয়াল কোর্ট সৃষ্টি করা হয়েছে।

এখন থেকে আইনজীবীরা ই-মেইলে বা mycourt.judiciary.org.bd লিংক ব্যবহার করে তার মক্কেলের জামিনের আবেদন করতে পারবেন।

আদালত সূত্রে জানানো হয়েছে-ভার্চ্যুয়াল কোর্টে শুনানির জন্য আবেদনপত্রে কোর্ট ফি লাগিয়ে মামলার নম্বর লিখে তা স্ক্যান করে বা ছবি তুলে পাঠাতে হবে। আইনজীবীকে তার ই-মেইল আইডি এবং মোবাইল নম্বর অবশ্যই সঙ্গে দিতে হবে। আদালত থেকে অনলাইন শুনানির জন্য একটি তারিখ নির্ধারণ করা হবে। এরপর শুনানির জন্য ঠিক করা দিন ও সময় সংশ্লিষ্ট আইনজীবীকে ই-মেইলে ও মোবাইলে বিষয়টি জানানো হবে।

নির্ধারিত সময়ে ওই আইনজীবী ইমেইলে পাঠানো লিংকে ক্লিক করেই ভিডিও কনফারেন্সে মাধ্যমে শুনানিতে অংশ নিতে পারবেন।

রাজশাহী জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসির জন্য জেলার বাগমারা, দুর্গাপুর, বাঘা ও চারঘাট উপজেলার জন্য নির্ধারিত হয়েছে এক নম্বর ভার্চ্যুয়াল কোট। এর বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল্লাহ আল আমিন ভুঁইয়া।

এই কোর্টের ই-মেইল হলো- [email protected] এই কোর্টে সহায়তাকারী হিসেবে থাকবেন স্টেনোগ্রাফার এসএম নূরে কামাল। তার মোবাইল নম্বর- ০১৮৩৬- ৯৫৭৭৫১।

রাজশাহীর গোদাগাড়ী, তানোর, পুঠিয়া ও মোহনপুর উপজেলার জন্য নির্ধারিত হয়েছে দুই নম্বর ভার্চ্যুয়াল কোট। এর বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল ইসলাম।

এই কোর্টের ই-মেইল হলো- [email protected] এই কোর্টে সহায়তাকারী হিসেবে আছেন স্টেনো টাইপিস্ট মিজানুর রহমান। তার মোবাইল নম্বর- ০১৭৭১-৯০৬২২৯।

শুনানির পর জামিন মঞ্জুর হলে বেইলবন্ড স্ক্যান বা ছবি তুলে আদালতে পাঠাবেন আইনজীবী। এরপর কারাগারে কাগজ পৌঁছানোর পর সদ্য জামিন পাওয়া আসামির মুক্তি মিলবে। প্রথম হওয়ায় প্রক্রিয়াটি জটিল মনে হলেও ই-মেইলে আবেদন শুরু করলে ধাপে ধাপে তা এমনিতেই সহজ হয়ে যাবে বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রে আশা করা হচ্ছে।

এদিকে, ভার্চ্যুয়াল কোর্ট পরিচালনার সার্বিক দিক নিয়ে বার সমিতির নেতা ও শীর্ষ আইনজীবীদের বিচারকদের সঙ্গে বৈঠক শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন, রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পারভেজ টি জাহেদী।

তিনি বলেন, ভার্চ্যুয়াল কোর্ট স্থাপন হয়েছে। এখন বিষয়টি নিয়ে বৈঠক শুরু হয়েছে। বৈঠকের পর আলোচনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০৪ ঘণ্টা, মে ১২, ২০২০
এসএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।