bangla news

জুয়ার সরঞ্জাম জব্দে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-০৫ ৬:৫৪:২২ পিএম
হাইকোর্ট/ফাইল ফটো

হাইকোর্ট/ফাইল ফটো

ঢাকা: অর্থের বিনিময়ে ১৩টি অভিজাত ক্লাবে হাউজি, ডাইস ও তাস খেলা অবৈধ করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার (লিভ টু আপিল মঞ্জুর) অনুমতি দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

কয়েকটি ক্লাবের করা দু'টি আবেদনে মঙ্গলবার (৫ মার্চ) প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে হাইকোর্টের দেওয়া ৩ নম্বর নির্দেশনা স্থগিত করেন।

পরে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সাংবাদিকদের বলেন, হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে দু'টি পিটিশন দায়ের করা হয়। পিটিশনে তারা লিভ (আপিলের অনুমতি) চান। আপিল বিভাগ এটা শুনানির জন্য গৃহীত করেছেন। হাইকোর্টের যে ৩ নম্বর ডাইরেকশন, যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে বলা হয়েছিল এই ক্লাবগুলোতে ঢুকে তাদের নানা রকম সরঞ্জাম বাজেয়াপ্ত করে। এ আদেশটি স্টে করা হয়েছে। ফলে পুলিশ আর ক্লাবগুলোতে গিয়ে এ সমস্ত সরঞ্জাম‍াদি আর সিজ করতে পারবে না।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে তিনি বলেন, আমার ব্যক্তিগত অভিমত হলো মুজিববর্ষে কোনো মতে দেশে জুয়া লেখা থাকুক এটা আমি চাই না।

আদালতে ক্লাবের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার এম আমীর উল ইসলাম, ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন, ফিদা এম কামাল ও মাসুদ রেজা সোবহান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

ঢাকা ক্লাবসহ দেশের ১৩টি অভিজাত ক্লাবে টাকার বিনিময়ে হাউজি, ডাইস ও তাস খেলার বিরুদ্ধে জারি করা রুলের চূড়ান্ত শুনানির পর ১০ ফেব্রুয়ারি রায় দেন আদালত। এর বিরুদ্ধে কয়েকটি ক্লাব আপিল বিভাগে আবেদন করে।

২০১৬ সালে ঢাকা ক্লাবসহ দেশের ১৩টি অভিজাত ক্লাবে টাকার বিনিময়ে হাউজি, ডাইস ও তাস খেলা নিয়ে হাইকোর্টে রিট করেছিলেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সামীউল হক ও রোকন উদ্দিন মো. ফারুক।

ওই রিটের শুনানি নিয়ে একই বছরের ৪ ডিসেম্বর ঢাকা ক্লাবসহ দেশের ১৩টি অভিজাত ক্লাবকে টাকার বিনিময়ে হাউজি, ডাইস ও তাস খেলা থেকে বিরত থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়। অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ ছাড়াও এ ব্যাপারে রুল জারি করা হয়েছে।

রুলে অভ্যন্তরীণ খেলার নামে কার্ড, ডাইস ও হাউজি খেলার বেআইনি ব্যবসা আয়োজনকারীদের বিরুদ্ধে কেন যথাযথ পদক্ষেপ নিতে নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছিল।

অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের বিরুদ্ধে ঢাকা ক্লাবের আবেদনের পর আপিল বিভাগ হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন এবং রুল নিষ্পত্তিতে আদেশ দেন। এরপর চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট রায় ঘোষণা করেন।

ক্লাবগুলো- ঢাকা ক্লাব, উত্তরা ক্লাব, গুলশান ক্লাব, ধানমন্ডি ক্লাব, বনানী ক্লাব, অফিসার্স ক্লাব ঢাকা, ঢাকা লেডিস ক্লাব, ক্যাডেট কলেজ ক্লাব, চিটাগাং ক্লাব, চিটাগাং সিনিয়রস ক্লাব, নারায়ণগঞ্জ ক্লাব, সিলেট ক্লাব ও খুলনা ক্লাব।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫১ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২০
ইএস/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-05 18:54:22