bangla news

কুষ্টিয়ায় প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণের দায়ে দুইজনের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-২৪ ৭:৪৪:৩৬ পিএম
যাবজ্জীবন। ছবি প্রতীকী

যাবজ্জীবন। ছবি প্রতীকী

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানায় দায়ের করা এক বাক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে দুইজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সাজা দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সি মো. মশিয়ার রহমান আসামিদের অনুপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- দৌলতপুর উপজেলার আল্লারদর্গা গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে রানা হোসেন এবং সোহেল রানার স্ত্রী বেলী খাতুন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ১০ নভেম্বর ওই বাক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ফুসলিয়ে ডেকে নিয়ে আটকে রেখে বেলী খাতুনের সহযোগিতায় রানা হোসেন তিনদিন ধরে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ১৩ নভেম্বর ভিকটিমের মা রুশিয়া খাতুন বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ।

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) আব্দুল হালিম জানান, বাক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় রানা হোসেন এবং ধর্ষণে সহযোগিতার দায়ে বেলী খাতুনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সাজা দিয়েছেন আদালত।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২০
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   যাবজ্জীবন কুষ্টিয়া
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2020-02-24 19:44:36