bangla news

বরিশালে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৫ জনকে আদালতের শোকজ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-১০ ৩:৩৪:৩৪ এএম
ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

বরিশাল: ধর্ষণচেষ্টার মামলা বিচারাধীন থাকা অবস্থায় আপোস মীমাংসা করায় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান ও দুই সদস্যসহ পাঁচজনকে শোকজ করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) মামলার ধার্য তারিখে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে আপোস মীমাংসার কাগজপত্র জমা দেন আসামিরা।

এতে আদালতের বিচারক মো. আবু শামীম আজাদ সালিশকারিদের আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে বিচারাধীন মামলার মীমাংসার বিষয়ে স্বশরীরে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

শোকজ প্রাপ্তরা হলেন- বানারীপাড়া ছয় নম্বর বাইশারী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাইনুল হাসান মোহাম্মদ, ইউপি সদস্য আব্দুস ছালাম, মহিলা ইউপি সদস্য রেহানা বেগম। এছাড়া অপর দু’জন হলেন একই এলাকার বাসিন্দা খায়রুল ইসলাম ও আলমগীর হোসেন।

আদালত সূত্র জানায়, বানারীপাড়া দত্তপাড়া গ্রামের এক বাসিন্দার স্ত্রী ২০১৭ সালের ১ আগস্ট একই এলাকার সায়েম কাজী ও রফিক মৃধার বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় আনিত অভিযোগ তদন্তের জন্য অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে তদন্তের নির্দেশ দেন বিচারক।

জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শিহাবুল ইসলাম আসামিদের অভিযুক্ত করে প্রতিবেদন জমা দেন। ওই প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার কাজ শুরু করে আদালত। এর মধ্যেই আদালতকে অবজ্ঞা করে চেয়ারম্যান আসামিদের পক্ষ নিয়ে আপোস মীমাংসার নামে বাদীর স্বাক্ষর নেয় এবং ওই কাগজ গতকাল ধার্য তারিখে আদালতে জমা দেয়। এর ধারাবাহিকতায় বিচারক ওই আদেশ দেন।

বাংলাদেশ সময়: ০০২২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০২০
এমএস/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বরিশাল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-10 03:34:34