ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

আইন ও আদালত

শিপব্রেকিং ইয়ার্ডে দুর্ঘটনার তথ্য চেয়েছেন হাইকোর্ট

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৯ ১১:৫৩:৪৩ পিএম
শিপব্রেকিং ইয়ার্ডে দুর্ঘটনার তথ্য চেয়েছেন হাইকোর্ট

ঢাকা: চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের শিপব্রেকিং ইয়ার্ডে বিভিন্ন সময় দুর্ঘটনা বিষয়ে অনুসন্ধান, দায়ী ইয়ার্ডের বিরুদ্ধে নেওয়া শাস্তিমূলক ও সংশোধনমূলক পদক্ষেপ এবং আহত-নিহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ, চিকিৎসা ও পুর্নবাসনের পদক্ষেপের বিস্তারিত জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট।

আগামী আগামী ৫ জানুয়ারি এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করতে হবে।

বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) এক সম্পূরক আবেদনে মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশনা দেন বলে জানিয়েছেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ কবীর।

তিনি আরও জানান, শিল্প মন্ত্রণালয়; শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়; পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়; পরিবেশ অধিদপ্তর; বিস্ফোরক অধিদপ্তর; কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর আদালতের এ নির্দেশনা পালন করতে হবে।

আদালতে ‘বেলা’র পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান এবং তাকে সহায়তা করেন আইনজীবী সাঈদ আহমেদ কবীর।

পরে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে সাঈদ কবীর জানান, ২০০৮ সালে ‘বেলা’র এক রিট মামলায় হাইকোর্ট বিভিন্ন সময়ে জাহাজ ভাঙা ইয়ার্ডে শ্রমিক স্বার্থ নিশ্চিতকরতে দফায় দফায় নির্দেশনা দেন। কিন্তু সংশ্লিষ্টদের অবহেলাজনিত কারণে রায় পরবর্তী সময় থেকে জাহাজভাঙতে গিয়ে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ১৯৪ জনশ্রমিক এবং পঙ্গুত্ববরণ করেছেন ৮৬ জনশ্রমিক।

এ অবস্থায় ‘বেলা’ সম্পূরক আবেদনটি করে বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
ইএস/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa