ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৬ মে ২০১৯
bangla news

আদালতে আসতে হবে না অভিনেত্রী নওশাবাকে

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১৭ ২:৩৬:৩১ পিএম
আদালতে নেওয়ার পথে নওশাবা | ফাইল ছবি

আদালতে নেওয়ার পথে নওশাবা | ফাইল ছবি

ঢাকা: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে দায়ের করা মামলায় অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৮ মে নতুন দিন ধার্য করেছেন আদালত। একইসঙ্গে আইনজীবী তার হাজিরা দিলেই চলবে বলে নির্দেশ দিয়েছেন।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) ওই মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার দিন ধার্য ছিলো। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা প্রতিবেদন না দেওয়ায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ দিদার হোসেন নতুন দিন নির্ধারণ করেন।

কাজী নওশাবা আহমেদের আইনজীবী ফৌজদারী কার্যবিধির ২০৫ ধারায় নওশাবার অনুপস্থিতিতে আইনজীবীর মাধ্যমে হাজিরা দেওয়ার অনুমতি চাইলে আদালত তা মঞ্জুর করেন। আগামী তারিখ থেকে নওশাবাকে আদালতে আর হাজিরা দিতে হবে না।

গত ১৫ জানুয়ারি নওশাবার উপস্থিতিতে আইনজীবী ইমরুল কাওসার স্থায়ী জামিন চেয়ে শুনানি করেন। শুনানি শেষে নওশাবার স্থায়ী জামিন আবেদন মঞ্জুর এবং একই সঙ্গে এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য গত ৩ মার্চ দিন ধার্য করেছিলেন আদালত।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন চলাকালে ২০১৮ সালের ৪ আগস্ট ফেসবুক লাইভে আসেন নওশাবা। ফেসবুক লাইভে তিনি বলেন, “জিগাতলায় চারজনকে মেরে ফেলা হয়েছে, একজনের চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে।”

সেই সময় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, ওইদিন জিগাতলায় এরকম কোনো ঘটনা ঘটেনি।

পরে গুজব সৃষ্টির অভিযোগে ওইদিন রাতেই উত্তরা থেকে নওশাবা আহমেদকে আটক করে র‌্যাব। এর পর দিন ৫ আগস্ট র‌্যাব-১ এর কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম বাদী হয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় নওশাবার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। তারপর তথ্যপ্রযুক্তি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

৫ আগস্ট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাজহারুল হক তাকে চারদিনের পুলিশ রিমান্ডের আদেশ দেন। প্রথম দফায় রিমান্ড শেষে ১০ আগস্ট আবারও নওশাবাকে দুই দিনের পুলিশ রিমান্ডের আদেশ দেন একই অদালত।

এরপর ২০১৮ সালের ২১ আগস্ট পাঁচ হাজার টাকা মুচলেকায় নওশাবা সিএমএম আদালতে জামিনে মুক্তি পান।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩২ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৯
এমএআর/এমজেএফ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আদালত
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-17 14:36:31