ঢাকা, শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

আইন ও আদালত

একমাসের ‌‌‘ছুটি’ চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৩৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২, ২০১৭
একমাসের ‌‌‘ছুটি’ চেয়েছেন প্রধান বিচারপতি প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা (ফাইল ফটো)

ঢাকা: অসুস্থতার কথা জানিয়ে রাষ্ট্রপতির বরাবরে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা একমাসের ছুটির আবেদন করেছেন বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

সোমবার (০২ অক্টোবর) দুপুরে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বাংলানিউজকে বলেন, ‘আমি শুনেছি, অসুস্থতার কথা উল্লেখ করে একমাসের ছুটি চেয়েছেন তিনি (প্রধান বিচারপতি)। তবে, আবেদনপত্রটি এখনো আমার কাছে আসেনি’।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বাংলানিউজকে বলেন, ‘প্রধান বিচারপতির ছুটি চাওয়ার খবরটি সঠিক। মঙ্গলবার (০৩ অক্টোবর) সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে অন্য বিচারপতিরা বসবেন’।

গত ২৭ আগস্ট থেকে ০২ অক্টোবর পর্যন্ত সাপ্তাহিক ছুটি, সরকার ঘোষিত ছুটি এবং সুপ্রিম কোর্টের অবকাশকালীন ছুটি ছিল। এর মধ্যে প্রধান বিচারপতি গত ০৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কানাডা ও জাপান সফরে ছিলেন।
 
মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট খোলার দিন আইনজীবীদের সঙ্গে প্রধান বিচারপতির সৌজন্য সাক্ষাতের কথা ছিলো। এ উপলক্ষে সুপ্রিম কোর্টের লনে প্যান্ডেলও তৈরি করা হয়েছিলো।
 
এরই মধ্যে দুপুরে প্রধান বিচারপতির ছুটিতে যাওয়ার খবর ‍জানান আইনমন্ত্রী ও ‍অ্যাটর্নি জেনারেল।
 
এ খবরের পর আইন মন্ত্রণালয়েও তোড়জোড় শুরু হয়। এখন প্রধান বিচারপতির ছুটিতে যাওয়ার আবেদনপত্র নিয়ে আইনসচিব আইনমন্ত্রীর বাসায় যাবেন। তিনি দেখার পর এটি নিয়ম অনুসরণ করে রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে পাঠানো হবে। তারপর সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদ অনুসারে প্রধান বিচারপতির অনুপস্থিতিকালে আপিল বিভাগের কর্মে প্রবীণতম বিচারপতিকে প্রধান বিচারপতির কার্যভার পালনের দায়িত্ব দেবেন রাষ্ট্রপতি। এরপর রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে প্রজ্ঞাপন জারি করবে আইন মন্ত্রণালয়।
 
আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি নিজেই ছুটি নিতে পারেন। এ ক্ষেত্রে সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদের প্রয়োগ করবেন রাষ্ট্রপতি’।

‘অস্থায়ী প্রধান বিচারপতি নিয়োগ’ সংক্রান্ত সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘প্রধান বিচারপতির পদ শূন্য হলে কিংবা অনুপস্থিতি, অসুস্থতা বা অন্য কোনো কারণে প্রধান বিচারপতি তার দায়িত্ব পালনে অসমর্থ বলে রাষ্ট্রপতির কাছে সন্তোষজনকভাবে প্রতীয়মান হলে ক্ষেত্রমত অন্য কোনো ব্যক্তি অনুরূপ পদে যোগদান না করা পর্যন্ত কিংবা প্রধান বিচারপতি স্বীয় কার্যভার পুনরায় গ্রহণ না করা পর্যন্ত আপিল বিভাগের অন্যান্য বিচারকের মধ্যে যিনি কর্মে প্রবীণতম, তিনি অনুরূপ কার্যভার পালন করবেন’।

বর্তমানে আপিল বিভাগে কর্মে প্রবীণতম বিচারপতি হচ্ছেন বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্‌হাব মিঞা।

২০১৫ সালের ১৭ জানুয়ারি ২১তম প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব নেন বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ০২, ২০১৭
এমআইএইচ/ইএস/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa