ঢাকা, সোমবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৮, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৮ সফর ১৪৪৩

আইন ও আদালত

রাষ্ট্রপক্ষের দুই আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ৬, ২০১৭
রাষ্ট্রপক্ষের দুই আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ

ঢাকা: রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সাময়িক বরখাস্তের আদেশের ওপর দেওয়া হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের করা দুই আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০৬ এপ্রিল) সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের আদালত আবেদন দু’টি কার্যতালিকা থেকে বাদ দেন।

বৃহস্পতিবার বুলবুল ও বুধবার (০৫ এপ্রিল) আরিফুলের বরখাস্তাদেশের স্থগিতাদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন জানান রাষ্ট্রপক্ষ।

গত রোববার (০২ এপ্রিল) হবিগঞ্জ পৌরসভার মেয়র জি কে গউছের পাশাপাশি বুলবুল ও আরিফুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ।

এরপর তিনজনেরই পৃথক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে সোমবার (০৩ এপ্রিল) ও মঙ্গলবার (০৪ এপ্রিল) পর্যায়ক্রমে সরকারের বরখাস্তাদেশ স্থগিত করেন বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ।

তিনজনের মধ্যে জি কে গউছের স্থগিতাদেশ স্থগিতে কোনো আবেদন জানাননি রাষ্ট্রপক্ষ।

দায়িত্ব নেওয়ার ১০ মিনিটের মধ্যে রোববার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে ফের সাময়িক বরখাস্ত হন রাসিকের মেয়র বুলবুল। দুপুর তিনটার পর তিনি সিটি করপোরেশনে নিজের কক্ষে বসতে না বসতেই ফ্যাক্সযোগে বরখাস্তের আদেশ আসে।

স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মুহাম্মদ আনোয়ার পাশা স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়, ‘মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের বিরুদ্ধে মহানগর বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১, রাজশাহীর মামলা নং- ১৩৬/১৫ (বোয়ালিয়া থানার মামলা নং-১৭, ৮ ফেব্রুয়ারি-২০১৫) অভিযোগপত্র গ্রহণ করেছেন আদালত। সেহেতু স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) আইন-২০০৯ (২০০৯ সালের ৬০নং আইন) এর ১২ এর উপধারা (১)-এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো’।  

অন্যদিকে দীর্ঘ ২৭ মাস পর রোববার সকালে সিসিকের মেয়রের চেয়ারে ফেরেন আরিফুল হক চৌধুরী। এর মাত্র তিন ঘণ্টার মাথায় বরখাস্ত হন তিনি।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিটি করপোরেশন অ্যাক্ট উপ-সচিব মো. মাহমুদুল আলম স্বাক্ষরিত বরখাস্তের ফ্যাক্স বার্তায় বলা হয়, ‘আরিফুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল মামলা- ৪/২০০৯ এর সম্পূরক অভিযোগপত্র গত ২২ মার্চ আদালতে গৃহীত হয়েছে। সেহেতু সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীকে স্থানীয় সরকার বিভাগ আইন ২০০৯ এর ১২ উপধারা প্রদত্ত ক্ষমতাবলে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো’।

প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত হত্যাচেষ্টার মামলার চার্জশিটে নাম থাকায় আরিফকে আবারও সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

হাইকোর্ট বরখাস্তাদেশ স্থগিত করার পর বুধবার (০৫ এপ্রিল) থেকে ফের স্ব স্ব চেয়ারে বসে মেয়রের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও আরিফুল হক চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৬, ২০১৭
ইএস/এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa